রোজ ১.৫ লিটার কফি সেবন করছে একটি বিশেষ শিশু

রোজ ১.৫ লিটার কফি সেবন করছে একটি বিশেষ শিশু

অত্যধিক পরিমাণে কফি বা চা খাওয়াটা স্বাস্থ্যের পক্ষে ক্ষতিকারক-এমন কথা সর্বত্ৰই শোনা যায়। কিন্তু এক্ষেত্ৰে ব্যতিক্ৰম ইন্দোনেশিয়ার একটি খুদে শিশু। প্ৰতিদিন ১.৫ লিটার কফি সেবন করে শিশুটি। অনেকেই স্তম্ভিত শিশুর কফি সেবনের এই দৃশ্য দেখে। সবচেয়ে বড় কথা হলো খুদে কন্যা শিশুটির বয়স মাত্ৰ ১৪ মাস। প্ৰতিদিন এত বেশি পরিমাণ কফি সেবনের পরও সম্পূর্ণ সুস্থ রয়েছে দুধের শিশুটি। শিশুর কফি সেবনে আশ্চর্য হয়েছেন অনেকেই।

পশ্চিম সোলাওয়েশির টনক লিমা গ্ৰামের বাসিন্দা খুদেটির নাম হাদিজা। শিশুটির অভিভাবক খুবই গরিব। আর্থিক স্বচ্ছলতা না থাকায় হাদিজাকে প্ৰতিদিন দুধ কিনে খাওয়ানোর ক্ষমতাটুকুও নেই তাঁদের। কফির দাম দুধের চেয়ে কম হওয়ায় পরিবারটি শিশুর পেট ভরাতে কফিই দিয়ে আসছেন। খবরটি সোশিয়াল মিডিয়ায় চাউর হতেই স্থানীয় পুলিশ শিশুটির বাড়িতে গিয়ে উপস্থিত হয়। পুলিশ দুধের পরিবর্তে ওইটুকু বাচ্চাকে কফি কেন দেওয়া হচ্ছে জানতে চায়। শিশুর স্বাস্থ্যের জন্য কফি কতটা অপকারী অভিভাবকদের সে বিষয়েও অবগত করায় পুলিশ।

শিশুটির মা অনিতা পরিবারের আর্থিক দৈন্যের কথা জানিয়ে বলেন,তাঁর স্বামী-অর্থাৎ হাদিজার বাবা নারকেলের খোসা ছাড়ানোর কাজ করেন। এই কাজের মাধ্যমে দিনে তার রোজগার হয় মাত্ৰ ১০০ টাকা। রুজি রোজগারের বিকল্প কোনও ব্যবস্থা নেই পরিবারের। এই টাকায় দিন গুজরান করা খুবই কঠিন। নুন আনতে পান্তা ফুরনোর মতো অবস্থা। ওই টাকায় রোজ বাচ্চার জন্য দুধ কেনা সম্ভব নয়। তাই দুধের চেয়ে সস্তা কফি কিনে আনা হয়। সম্প্ৰতি হাদিজারও কফির প্ৰতি আসক্তি বেড়ে গেছে। একদিন কফি না দিলে কাঁদতে শুরু করে হাদিজা।

এ সম্পর্কে চিকিৎসকদের অভিমত হলো,কফি শিশুদের জন্য যথেষ্ট ক্ষতিকারক। তাই যেকোনও সময় কফি খেতে নেই। কিন্তু দৈন্য দশার জন্য কফি ছাড়া অন্য কি দিয়ে মেয়ের পেট ভরাবেন তার পথ খুঁজে পাচ্ছে না পরিবারটি।

অধিক খবরের জন্য ভিডিও দেখুন: Soil Erosion at 4-lane National Highway in Lumding | The Sentinel News | Assam News

logo
Sentinel Assam- Bengali
bengali.sentinelassam.com