রাজ্যের খবর

মমিনুলের অভিযোগের বিরুদ্ধে কটাক্ষ আসুর

আসু

গুয়াহাটিঃ রাষ্ট্ৰীয় নাগরিক পঞ্জির(এনআরসি)বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে সারা অসম ছাত্ৰ সংস্থা(আসু)তেমন আগ্ৰহ দেখাচ্ছে না বলে অসম সংখ্যালঘু উন্নয়ন পর্ষদের(এএমডিবি)চেয়ারম্যান মমিনুল আওয়াল যে অভিযোগ এনেছেন আসু তা খণ্ডন করেছে। আসুর সাধারণ সম্পাদক লুরিনজ্যোতি গগৈ কটাক্ষ করে প্ৰাক্তন নেতা হিসেবে আওয়ালের অভিপ্ৰায় সম্পর্কে প্ৰশ্ন তোলেন।

বৃহস্পতিবার এখানে সাংবাদিকদের কাছে বক্তব্য রেখে গগৈ বলেন,আওয়াল এমন একটা কঠোর মন্তব্য করেছেন যে প্ৰাক্তন আসু নেতা হিসেবে তাঁর অভিপ্ৰায় সম্পর্কে একটা গুরুতর সন্দেহের সৃষ্টি করেছে। গগৈ বলেন,‘বিদেশি ইস্যু নিয়ে আমরা আমাদের অবস্থান ইতিমধ্যেই খোলসা করে দিয়েছি। এই ইস্যুতে আমাদের অবস্থান স্ফটিকের মতো স্বচ্ছ। সেটা হলো ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চকে ভিত্তি বছর ধরেই বিদেশি শনাক্ত করতে হবে।

উল্লিখিত কাট অফ ডেটের পরে পড়শি দেশ থেকে যারা এসেছে তাদের বিদেশি ঘোষণা করার পাশাপাশি রাজ্য থেকে বহিষ্কার করতে হবে। কিন্তু আওয়াল সেই সব ভাষিক সংখ্যালঘু মানুষের প্ৰতি দরদ ও সহানুভূতি দেখাচ্ছেন যারা ১৯৭১-এর ২৫ মার্চের পর রাজ্যে এসেছে-বলেন লুরিন। আসু নেতা আরও বলেন,‘কংগ্ৰেস,এআইইউডিএফ এবং বিজেপি দলের মধ্যে কোনও ফারাক নেই। কংগ্ৰেস এবং এআইইউডিএফ সবসময়ই ধর্মীয় প্ৰসঙ্গ তুলে রাজনৈতিক পরিবেশ তাতিয়ে তোলার চেষ্টা করছে এবং অন্যদিকে বিজেপি ভাষিক সংখ্যালঘুদের নিয়ে এই একই খেলা খেলছে’।

আওয়াল গত বুধবার অভিযোগ করেছিলেন অসমে প্ৰব্ৰজন করা লক্ষ লক্ষ মুসলমানের নাম এনআরসিতে অন্তর্ভুক্ত হওয়ার পরও আসু নেতৃত্ব কেন নীরব? তিনি বলেছেন,এনআরসি থেকে কোচ রাজবংশী,তিওয়া,রাভা,কার্বি,চুটিয়া,হাজং,আহোম,কছারি,হিন্দিভাষী,গোর্খা ও বাঙালিদের লক্ষ লক্ষ নাম বাদ পড্ৰেছে। এ সম্পর্কে আসুর প্ৰতিক্ৰিয়া কি সেই প্ৰশ্নও তুলেছেন তিনি। মমিনুলের আরও অভিযোগ আসু নেতৃত্ব তদানীন্তন মুখ্যমন্ত্ৰী তরুণ গগৈর সঙ্গে বৈঠকে এনআরসিতে কি কি নথি গ্ৰহণ করা যাবে সে সম্পর্কে সিদ্ধান্ত গ্ৰহণ করেছিল। ফাঁকফোকর থাকা নথি গ্ৰহণের ফলে প্ৰব্ৰজনকারীরা নিজেদের নাম এনআরসিতে অন্তর্ভুক্ত করার সু্যোগ পেয়ে গেছে। আসু নেতৃত্বের দূরদর্শিতার অভাবেই লক্ষ লক্ষ মুসলমান প্ৰব্ৰজনকারী এনআরসিতে নিজেদের নাম অন্তর্ভুক্ত করতে সক্ষম হয়েছে এবং লক্ষ লক্ষ স্থানীয় মানুষের নাম এর থেকে বাদ পড়েছে বলে তিনি অভিযোগ করেছেন।

আসু নেতা গগৈ এব্যাপারে স্পষ্টীকরণ দিয়ে বলেন শুধু আসুই নয় বিভিন্ন সংগঠন এনআরসির বিষয়টি নিয়ে প্ৰাক্তন মুখ্যমন্ত্ৰীর সঙ্গে আলোচনা করেছিল। এরপরই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল-বলেন গগৈ। কংগ্ৰেস নেতা রাহুল গান্ধীর সঙ্গে আসুর মাখামাখি রয়েছে এবং রাহুলের সঙ্গে ছবিতে আসু নেতাদের ফোজ দেওয়া নিয়ে আওয়াল যে অভিযোগ এনেছেন সে সম্পর্কে গগৈ প্ৰশ্ন করেন মুখ্যমন্ত্ৰী সর্বানন্দ সোনোয়াল যখন আসুর সভাপতি ছিলেন সেই সময় তিনি সোনিয়া গান্ধীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করে ফোটোতে পোজ দিয়েছিলেন। তাই আওয়ালের এসব মন্তব্যের অভিপ্ৰায় কি হতে পারে-আসুর তা ভালই জানা আছে-বলেন লুরিন।

 

অন্যান্য খবরের জন্য পড়ুনঃ ‘ক্যাব’ নিয়ে সোনোয়াল,হিমন্তকে দুষলেন প্ৰাক্তন মুখ্যমন্ত্ৰী তরুণ গগৈ

অধিক খবরের জন্য ভিডিও দেখুন: এনআরসি ছুট প্ৰকৃত ভারতীয়দের আইনি সাহায্য দেবে প্ৰদেশ কংগ্ৰেস