সংবাদ শিরোনাম

জম্মু ও কাশ্মীর, লদাখে সূচনা হলো এক নতুন অধ্যায়ের,আবার হাসবে কাশ্মীরঃ মোদি

নরেন্দ্ৰ মোদি

নয়াদিল্লিঃ ‘জম্মু ও কাশ্মীরে এক নতুন অধ্যায়ের সবে শুরু হলো এবং এখন থেকে সারা দেশের মানুষ সম অধিকারের হকদার’। বৃহস্পতিবার রাতে রাষ্ট্ৰের উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে প্ৰধানমন্ত্ৰী নরেন্দ্ৰ মোদি একথা বলেন।

‘জম্মু ও কাশ্মীরে একটা নতুন অধ্যায়ের সবে সূচনা হলো। এখন থেকে গোটা দেশের মানুষের অধিকার ও দায়িত্ব সমান’। ১৭তম  লোকসভা গঠনের পর রাষ্ট্ৰের উদ্দেশে মোদির এটাই প্ৰথম ভাষণ। টেলিভিশনের পর্দায় প্ৰায় ৪০ মিনিট ভাষণের সময় জম্মু ও কাশ্মীর এবং লদাখ থেকে সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিল হওয়ায় মোদি জম্মু কাশ্মীর ও লদাখের মানুষকে অভিনন্দন জানান। ৩৭০ অনুচ্ছেদ জম্মু ও কাশ্মীরকে বিশেষ মর্যাদা দিয়েছিল। ওই ধারা রদের মাধ্যমে কাশ্মীর দ্বিখণ্ডিত করে দুটো কেন্দ্ৰশাসিত অঞ্চল গঠন করা হয়েছে। এর একটি হলো জম্মু ও কাশ্মীর এবং অন্যদি লদাখ। কাশ্মীরে বিধানসভা থাকছে,লদাখে থাকছে না।

কাশ্মীর দ্বিখণ্ডিতকরণ বিলটি সংসদেও অনুমোদিত হয়েছে। মোদি আশ্বাস দিয়ে বলেন,গত বছর অনুষ্ঠিত পঞ্চায়েত ভোটের মতো জম্মু ও কাশ্মীরে একটা নতুন সরকার বসাতে অত্যন্ত স্বচ্ছতার সঙ্গে বিধানসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। মোদি চান,অঞ্চলটির স্থানীয় তরুণরা রাজনীতির অঙ্গনে আসুক এবং নির্বাচনে অংশ নিক। প্ৰধানমন্ত্ৰী কাশ্মীরে ব্লক উন্নয়ন পরিষদ গঠনের কাজ শীঘ্ৰ সম্পূর্ণ করার জন্য রাজ্যের রাজ্যপালকে আহ্বান জানান। গত দুই তিন দশক ধরে ব্লক উন্নয়ন পরিষদ গঠনের কাজ ঝুলে রয়েছে।

‘আমার দৃঢ় বিশ্বাস ৩৭০ ধারা রদের পর পঞ্চায়েত সদস্যরা এই নতুন ব্যবস্থায় কাজ করার সু্যোগ পাবেন এবং তখন তারা কামাল দেখাতে পারবেন। কাশ্মীরের মানুষ বিচ্ছিন্নতাবাদকে পরাভূত করে নতুন আশায় বুক বেঁধে এগিয়ে যাবেন,আমার সেই আস্থা রয়েছে’-বলেন প্ৰধানমন্ত্ৰী। মোদি আরও বলেন,৩৭০ ধারা রদ করায় সর্দার বল্লভভাই প্যাটেল,বিআর আম্বেদকর,শ্যামা প্ৰধান মুখার্জি এবং প্ৰাক্তন প্ৰধানমন্ত্ৰী অটলবিহারী বাজপেয়ীর স্বপ্ন আজ পূর্ণ হলো।

‘একটা পরিবার এবং একই রাষ্ট্ৰের মতো জম্মু ও কাশ্মীর নিয়ে আমরা এই ঐতিহাসিক সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এটা এমনই এক ব্যবস্থা যা থেকে জম্মু ও কাশ্মীর এবং লদাখের মানুষকে বিভিন্ন অধিকার থেকে বঞ্চিত রাখা হয়েছিল। অঞ্চলটির সার্বিক বিকাশে প্ৰধান অন্তরায় হয়ে দাঁড়িয়েছিল ৩৭০ ধারা। এখন ওই বাধা কেটে গেছে’। ‘এই অনুচ্ছেদ অপসারিত হওয়ায় সর্দার বল্লভভাই প্যাটেল,বিআর আম্বেদকর,শ্যামা প্ৰসাদ মুখার্জি,অটলবিহারী এবং কোটি কোটি দেশপ্ৰেমীর স্বপ্ন আজ সাকার হলো’-ভাষণে উল্লেখ করেন মোদি।

প্ৰধানমন্ত্ৰী আরও বলেন,কাশ্মীর এবং লদাখ কেন্দ্ৰশাসিত অঞ্চলে যে সমস্ত সরকারি পদ খালি পড়ে আছে শীঘ্ৰই সেগুলি পূরণ করা হবে। তিনি বলেন,কাশ্মীরে সন্ত্ৰাস জিইয়ে রাখতেই পাকিস্তান ৩৭০ ধারাকে হাতিয়ার হিসেবে কাজে লাগিয়েছিল। গত তিন দশকে কাশ্মীরে প্ৰায় ৪২ হাজার মানুষকে কোতল করা হয়েছে। এর আগে যে সব আইন প্ৰণয়ন করা হয়েছে সেগুলি থেকে কাশ্মীরি মানুষ উপকৃত হননি। এখন সংসদে যে সব আইন হবে সেগুলো কাশ্মীর ও লদাখে প্ৰযোজ্য হবে।

মোদি বলেন,১৯৪৭-এর পর যে সব মানুষ ভারতে এসেছেন তারা জম্মু ও কাশ্মীরের নির্বাচনে অংশ নিতে পারেননি। অথচ দেশের সর্বত্ৰ ওই সব মানুষ এই অধিকার পেয়েছেন কিন্তু জম্মু ও কাশ্মীরে তাদের সেই অধিকার ছিল না। ৩৭০ ধারা বাতিল হওয়ায় এই মানুষগুলোর অধিকার কাশ্মীরে পুনঃপ্ৰতিষ্ঠিত হলো। প্ৰধানমন্ত্ৰী বলেন,কাশ্মীর বলিউড ছবি শ্যুটিঙের অভীষ্ট লক্ষ্য ছিল। এখন পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে এলে গোটা বিশ্বের মানুষ ছবির শ্যুটিং করতে কাশ্মীরে আসবেন। বিশ্বের সেরা পর্যটন স্থল হিসেবে কাশ্মীরের পর্যাপ্ত সম্ভবনা রয়েছে। এবং এবার তা বাস্তব রূপ নেবে। ছবি নির্মাণের মাধ্যমে নিয়োগের দ্বারও খুলবে। প্ৰধানমন্ত্ৰী তাঁর ভাষণে ৩৭০ ধারার মাধ্যমে কাশ্মীরিদের বঞ্চনার-ফিরিস্তিই তুলে ধরেননি,বঞ্চনার নাগপাশ থেকে কিভাবে কাশ্মীরিদের উত্তরণ ঘটবে সেকথা স্পষ্টভাবে বুঝিয়ে দিয়েছেন।

জম্মু ও কাশ্মীর এবং লদাখের পাহাড়ি অঞ্চলে এমন কিছু সম্পদ রয়েছে যা আজও অধরা থেকে গেছে। লদাখে সোলো নামে একধরনের উদ্ভিদ ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে। ভেষজগুণ সমৃদ্ধ এধরনের আরও উদ্ভিদ দেখতে পাওয়া যায় কাশ্মীর ও লদাখে। উঁচু পাহাড়ি এলাকায় বসবাসকারীদের জন্য সেলো খুবই উপকারী। সোলোর নানা রোগ নিরাময়ের ক্ষমতা রয়েছে। এগুলো থেকে ওষুধ তৈরি করে বিশ্বে রপ্তানি করতে পারবে ভারত। এতে স্থানীয় কৃষকরা উপকৃত হবেন। জম্মু ও কাশ্মীর এখন এমন উচ্চতায় যাবে,যা সারা বিশ্বের মানুষের নজর কাড়বে। অঞ্চলটির মানুষের জীবনযাত্ৰা উন্নত হবে। কাশ্মীর আবার হাসবে,রূপ নেবে ভূস্বর্গের-আশ্বাস দেন প্ৰধানমন্ত্ৰী।

 

অন্যান্য খবরের জন্য পড়ুনঃ জম্মু ও কাশ্মীর পুনৰ্গঠন বিল রাজ্যসভায় উতরে গেল

অধিক খবরের জন্য ভিডিও দেখুন: Lakhimpur police seize ganja, apprehends three drug peddlers