Begin typing your search above and press return to search.

জনগণনার সঠিক তথ্য সুনিশ্চিত করতে বিশেষভাবে তৈরি মোবাইল অ্যাপ

জনগণনার সঠিক তথ্য সুনিশ্চিত করতে বিশেষভাবে তৈরি মোবাইল অ্যাপ

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  25 Jan 2020 8:05 AM GMT

গুয়াহাটিঃ ডিরেক্টরেট অফ সেন্সাস,অসম ২০২১ সালে জনগণনার জন্য বিশেষভাবে নকশা করা একটা মোবাইল অ্যাপ ব্যবহার করতে চলেছে। গণনাকারীদের অবহেলা অথবা অন্যভাবে জনগণনার ক্ষেত্ৰে প্ৰায়ই ভুল তথ্য সংগ্ৰহের ঘটনা ঘটে থাকে তার অবসানেই এই নতুন মোবাইল অ্যাপ ব্যবহার করা হবে। ২০২১ সালে জনগণনার প্ৰথম পর্যায় শুরু হচ্ছে চলতি বছরের ২০ এপ্ৰিল থেকে। তথ্য সংগ্ৰেহের ক্ষেত্ৰে কোয়ালিটি এবং যথার্থতার প্ৰতি বিশেষ গুরুত্ব দিয়েই একাজ শুরু করা হবে।

সেন্সাস ডিরেক্টর নারায়ণ কোঁয়র দ্য সেন্টিনেলকে বলেন,‘বাড়িসমূহ নাম্বারিঙের প্ৰক্ৰিয়া এবং গৃহ গণনার কাজ শুরু হবে ২০২০-র ২০ এপ্ৰিল থেকে ২০ মে-র মধ্যে। অন্যদিকে,জনগণনার কাজ শুরু হবে ২০২১-এর ৯ ফেব্ৰুয়ারি থেকে এবং তা চলবে ২০২১-এর ২৮ ফেব্ৰুয়ারি পর্যন্ত। আমরা সেন্সাস কর্মীদের প্ৰশিক্ষণ দেবার কাজ ইতিমধ্যেই শুরু করে দিয়েছে। জনগণনার সময় অশুদ্ধ ডাটা সংগ্ৰহের অভি্যোগ রয়েছে। এধরনের ভুলগুলি তখনই বেশি ঘটে থাকে যখন গণনাকারীরা তাদের জন্য বরাদ্দ করা এলাকাগুলোতে নিজেরা সশরীরে উপস্থিত না হয়ে ডাটা প্ৰস্তুত করে থাকেন। তবে এখন আমরা এধরনের অবাঞ্ছিত অভ্যেসগুলোর ইতি টানতে বিশেষ ব্যবস্থা হাতে নিয়েছি’। ‘আমরা বিশেষভাবে প্ৰস্তুত করা একটা মোবাইল অ্যাপ প্ৰস্তুত করেছি। এক একটা বাড়ির লোকের সঠিক সংখ্যা ও বিস্তারিত তথ্য গণনাকারীরা ওই মোবাইল অ্যাপে আপলোড করতে পারবেন। এই অ্যাপ একজন গণনাকারীকে তার জন্য ধার্য এলাকাগুলির প্ৰতিটি বাড়িতে যেতে বাধ্য করবে। যদি কোনও গণনাকারী নিজের এলাকাগুলোর বাড়িতে সশরীরে না যান তাহলে ওই অ্যাপ কার্যকর হবে না। জেলাশাসক সহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তরা ডিউটিতে থাকা গণনাকারীরা ওই অ্যাপ সহ তাদের জন্য ধার্য এলাকার প্ৰতিটি বাড়িতে গেছেন কিনা সে ব্যাপারে পুরোপুরি সচেতন থাকবেন’।

কোঁয়র আরও বলেন,‘গণনাকারীরা যখন তাদের জন্য ধার্য এলাকাগুলোতে যাবেন তখন গ্ৰাম প্ৰধান অথবা এনজিও-র প্ৰতিনিধি এবং সংগঠনগুলোর সঙ্গেও সাক্ষাৎ করবেন। জনগণনার ক্ষেত্ৰে কেউ যাতে তথ্য লুকোতে অথবা মিথ্যে তথ্য দিতে না পারেন তার জন্যই এমন ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। এধরনের অভ্যেসগুলো এড়ানোর জন্য কমিউনিটি ইনভলবমেন্ট সুনিশ্চিত করতেও গণনাকারীদের প্ৰশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে’।

কোঁয়রের মতে,৬০ হাজার গণনাকারী সহ প্ৰায় ১ লক্ষ কর্মকর্তাকে গণনার কাজে ন্যস্ত করা হবে। কোঁয়রের মতে,গণনাকারীদের অধিকাংশই শিক্ষক হবেন। কারণ নিজের এলাকা সম্পর্কে অন্যান্য কর্মকর্তাদের থেকে তাদের বেশি জানা থাকবে। শিক্ষকদের একাজে লাগানোয় পাঠদানে কিছু ক্ষতি হবে ঠিকই,তবে তাদের কয়েকটি ক্লাস নেওয়ার পরই গণনার কাজে যেতে বলা হবে-জানান তিনি। ‘গণনার সময় প্ৰতিটি পরিবারের ভাষা,ধর্ম,জাতপাত,শিক্ষাগত যোগ্যতা,পরিবারের আকার,বাড়ির অধিকার,পেশা ইত্যাদির তথ্যও সংগ্ৰহ করবেন গণনাকারীরা’।

অন্যান্য খবরের জন্য পড়ুনঃ ‘বিচ্ছিন্নতাবাদীরা অশুভ শক্তি নয় বলা ভুল ছিল,’সুপ্ৰিম কোর্টকে কেন্দ্ৰ

অধিক খবরের জন্য ভিডিও দেখুন: Stage Set for Republic Day 2020 Celebrations in Guwahati

Next Story