সংবাদ শিরোনাম

তিনসুকিয়ায় রেলওয়ে উড়াল সেতুর শিলান্যাস করলেন মুখ্যমন্ত্ৰী

উড়াল সেতু

 

তিনসুকিয়াঃ প্ৰধানমন্ত্ৰী নরেন্দ্ৰ মোদির জন্মদিনের সঙ্গে সঙ্গতি রেখে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্ৰী সর্বানন্দ সোনোয়াল মঙ্গলবার তিনসুকিয়ার শ্ৰীপুরিয়া লেভেল ক্ৰসিঙে রেলওয়ে উড়াল সেতু প্ৰকল্পের শিলান্যাস করেন। একই সঙ্গে ভূমি পূজারও আয়োজন হয় এদিন। এই প্ৰকল্প বাবদ খরচের পরিমাণ ধার্য হয়েছে ৬০.২১ কোটি টাকা। মুখ্যমন্ত্ৰীর সঙ্গে ছিলেন রাজ্যের পূর্তমন্ত্ৰী হিমন্তবিশ্ব শর্মা এবং রাজ্য সরকার ও রেলওয়ের পদস্থ কর্মকর্তারা। এলএমবি রোডে ৫৬৩.৪০ মিটার দীর্ঘ সেতুটি নির্মাণে কেন্দ্ৰ ও রাজ্য সরকার ৫০:৫০ অনুপাতে অর্থ শেয়ার করবে। অসমের শহর পরিকাঠামো উন্নয়ন তহবিল(সিআইডিএফ)প্ৰোজেক্ট কস্টের ৫০ শতাংশ অর্থ দেবে।

এ উপলক্ষে তিনসুকিয়ার গোলাপচন্দ্ৰ রবি চন্দ্ৰ নাট্য মন্দিরে আয়োজিত এক সমাবেশে ভাষণ দিতে গিয়ে অর্থমন্ত্ৰী হিমন্তবিশ্ব শর্মা বলেন,ডিব্ৰুগড় থেকে তিনসুকিয়া পর্যন্ত সড়কের অবস্থার অনেকটাই উন্নতি হয়েছে। গত জুনে তিনি যখন এখানে এসেছিলেন তখন সড়কের অবস্থা খুবই খারাপ ছিল। সেই তুলনায় এখন সড়কের হাল অনেকটাই ভাল। তবে এই পথের আরও উন্নতির প্ৰয়োজন রয়েছে-বলেন তিনি। কাজের অগ্ৰগতি দেখার জন্য আগামি নভেম্বর ফের তিনসুকিয়ায় আসবেন বলে আশ্বাস দেন শর্মা। তিনি বলেন,চলতি আর্থিক বছরে রাজ্যের ২৬টি রেলওয়ে ক্ৰসিঙে আরও ১৩টি রেলওয়ে উড়াল সেতু নির্মাণ করা হবে।

তিনি ঘোষণা করেন,তিনসুকিয়া পূর্ত বিভাগের(বিল্ডিং ডিভিশন)এগজিকিউটিভ ইঞ্জিনিয়ারের একটি পূর্ণাঙ্গ কার্যালয় স্থাপন করা হবে। সেই সঙ্গে থাকছে সুপারিনটেনডেন্ট ইঞ্জিনিয়ারের(সড়ক)কার্যালয়ও। তিনসুকিয়া জেলার তিনটি রোড ডিভিশনের কাজকর্ম তদারক করবেন সুপারিনটেনডেন্ট ইঞ্জিনিয়ার।

সভায় মুখ্যমন্ত্ৰী সোনোয়াল তাঁর ভাষণে ঐতিহাসিক তিনসুকিয়া শহরকে উত্তর পূর্বের বাণিজ্যিক কেন্দ্ৰ হিসেবে অভিহিত করে বলেন,ব্ৰিটিশ জমানা থেকেই দেশের অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে এসেছে এই শহর। জেলার পরিকাঠামো শক্তিশালী করার সঙ্গে সঙ্গে এ শহরকে নতুন রূপ দিতে সরকারের বেশকিছু পরিকল্পনা রয়েছে। বলেন,মঙ্গলবার অর্থাৎ ১৭ সেপ্টেম্বর ছিল প্ৰধানমন্ত্ৰী নরেন্দ্ৰ মোদির জন্মদিন। তাই দেশবাসীর কাছে দিনটি যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ ছিল। প্ৰধানমন্ত্ৰীর দৃঢ় ও বলিষ্ঠ নেতৃত্বই আজ ভারতকে বিশ্বের দরবারে এক নতুন পরিচিত এনে দিয়েছে। প্ৰধানমন্ত্ৰী প্ৰতি মুহূর্তে দেশের মানুষকে কর্মসংস্কৃতিতে জড়িয়ে থাকতে অনুপ্ৰাণিত করে চলেছেন। মানুষের সেবায় প্ৰতিনিয়ত লেগে রয়েছেন প্ৰধানমন্ত্ৰী। তিনসুকিয়ার জনগণকে রাজ্যে একটা আদর্শ সমাজ গড়ে তোলার আহ্বান জানিয়ে মুখ্যমন্ত্ৰী তিনসুকিয়ার বহু ভাষিক ও বহুমুখী সংস্কৃতির মেলবন্ধনের প্ৰশংসা করেন। তিনি বলেন,প্ৰধানমন্ত্ৰী নরেন্দ্ৰ মোদির জন্মদিন সপ্তাহ ব্যাপী ‘সেবা সপ্তাহ’ হিসেবে পালিত হচ্ছে। তাই পরিচ্ছন্নতা,বৃক্ষরোপণ ও প্লাস্টিক সম্পূর্ণ বর্জনের মাধ্যমে এই সেবা সপ্তাহ পালন করা উচিত।

এদিনের অনুষ্ঠানে তিনসুকিয়ার বিধায়ক সঞ্জয় কিষেন,কেন্দ্ৰীয়মন্ত্ৰী রামেশ্বর তেলি,কমিশনার এবং বিশেষ সচিব রাজেশ কেম্প্ৰাই ও অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন সমাবেশে।

 

অন্যান্য খবরের জন্য পড়ুনঃ নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও কলেজ শিক্ষকরা ঢালাও প্ৰাইভেট টিউশন করছেন

অধিক খবরের জন্য ভিডিও দেখুন: CM Sonowal laid foundation stone for 60.21 cr flyover in Tinsukia | The Sentinel News | Assam News