রাজ্যের খবর

মাকুমে মহা অষ্টমীর দিনদুপুরে চারটি বাড়িতে চোরের হানা

চোরের হানা

 

মাকুমঃ দুর্গা পুজোর মহা অষ্টমীর দিন অর্থাৎ রবিবার মাকুমের টেঙাপানি রোডে চার চারটি চুরির ঘটনার খবর পাওয়া গিয়েছে। স্থানীয় সূত্ৰের মতে,কিছু অজ্ঞাত দুষ্কৃতী মানুকের টেঙাপানি এলাকায় জিতেন হাতি বরুয়া,নিলোকান্ত গগৈ,গুণকান্ত ফুকন ও অজিত কুমার দে-র বাড়িতে হানা দেয় বাড়ির লোকজন না থাকার সু্যোগ নিয়ে। চোরেরা প্ৰথম তিনজন অর্থাৎ হাতি বরুয়া,গগৈ ও ফুকনের বাড়ি থেকে সমস্ত অলংকার,টাকা পয়সা ও মূল্যবান সামগ্ৰী লুট করে নিয়ে যায়। তবে অজিত কুমার দে-র বাড়িতে হানা দিলেও চোরের দল কোনও মূল্যবান সামগ্ৰী তুলে নিতে পারেনি।

অজিত কুমার দে-র ছেলে অংশুমান দে দ্য সেন্টিনেল ডিজিটেলকে জানিয়েছেন যে অষ্টমীর দিন বেলা ১১টা নাগাদ ঘটনাটি ঘটে। ওই সময় পুজো দেখতে বাড়ির সবাই শহরে গিয়েছিল। বাড়ির লোকজন না থাকার সু্যোগ নিয়েই চুরির চেষ্টা চালায় চোরেরা।

ঘটনা সংক্ৰান্তে মাকুম থানায় এপর্যন্ত দুটি মামলা নথিভুক্ত করা হয়েছে। মাকুম থানার ওসি টি গগৈ দ্য সেন্টিনেল ডিজিটেলকে বলেন,‘আমরা ঘটনার তদন্ত করছি এবং আমাদের তদন্তকারী অফিসার ঘটনার অনুপুঙ্খভাবে খতিয়ে দেখছেন। তবে এপর্যন্ত সন্দেহজনক হিসেবে কাউকে আটক করা হয়নি। তদন্ত শেষ হওয়ার পর আমরা এর সমাধান সূত্ৰ খুঁজে পাবো বলে আশা করছি’-বলেন তিনি।

ওসি টি গগৈ এসব ক্ষেত্ৰে পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা করে চলতে মাকুমের জনগণের প্ৰতি আবেদন জানিয়েছেন। বিশেষ করে পরিবারের লোকজন শহর অথবা জেলার বাইরে গেলে পুলিশকে আগাম জানানোর জন্য জনগণকে অনুরোধ করেছেন তিনি।

গগৈ আরও বলেছেন সংশ্লিষ্ট এলাকার মানুষ পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ রাখলে এধরনের চুরির ঘটনার সম্ভাবনা কম থাকে। কারণ বাড়িতে লোক না থাকার কথা আগাম জানা থাকলে পুলিশ ওই সব এলাকায় ঘন ঘন টহল দেওয়ার ব্যবস্থা করতে পারবে। এসব ব্যাপারে পুলিশ এর আগে অনেক বারই সচেতনতা সভার আয়োজন করেছে। তাই জনগণের উচিত পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা করা। তাহলেই পুলিশ সংশ্লিষ্ট এলাকায় টহলদারির ব্যবস্থা করতে পারে-বলেন ওসি গগৈ।

 

অন্যান্য খবরের জন্য পড়ুনঃ অসমের ঐতিহ্যপূর্ণ মেখেলা চাদরে শোভিত নয়ডার দুর্গা প্ৰতিমা

অধিক খবরের জন্য ভিডিও দেখুন: Durga Puja 2019: Durga Puja Celebrations at Bholanath Mandir