Top
Begin typing your search above and press return to search.

গেটোরেড ইন্ডিয়ার ব্ৰ্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে নিযুক্ত ধিং এক্সপ্ৰেস হিমা দাস

গেটোরেড ইন্ডিয়ার ব্ৰ্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে নিযুক্ত ধিং এক্সপ্ৰেস হিমা দাস

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  13 Sep 2019 1:48 PM GMT

পেপ্সিকো ইন্ডিয়া ধিং এক্সপ্ৰেস নামে খ্যাত অসম কন্যা হিমা দাসকে স্পোর্টস ড্ৰিঙ্ক ব্ৰ্যান্ড গেটোরেডর ব্ৰ্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে নিয়োগ করেছে। কোম্পানির এক মন্তব্য অনু্যায়ী হিমার অনুশীলনের সঙ্গে অন্যান্য অনেক বিষয় অধ্যয়ন করতে গেটোরেড ইন্ডিয়া হিমা দাসের সঙ্গে কাজ করবে। এদিকে গেটোরেডের সঙ্গে জড়িত হতে পেরে অত্যন্ত সুখী অনুভব করছেন ভারতের স্প্ৰিন্টার কুইন হিমা দাস। এ সম্পর্কে হিমা মন্তব্য করেন যে ক্ৰীড়া বিভাগের বহু বরিষ্ঠ ব্যক্তিত্ব এর সঙ্গে জড়িয়ে থাকার জন্য আমি খুবই আনন্দিত। অন্যদিকে,পেপ্সিকো ইন্ডিয়ার নির্দেশক তরুণ ভগত বলেন,দৌড়ের রানি হিমাকে আমরা গেটোরেড পরিবারে স্বাগত জানাতে পেরে অত্যন্ত সুখ অনুভব করছি। গেটোরেড ইন্ডিয়া হিমা দাসের সঙ্গে সহযোগিতা করতে পেরে যারপর নেই আনন্দ আনুভব করছে।

উল্লেখ করা যেতে পারে যে অসম তনয়া হিমা চলতি বছরের দুমাস সময়ের মধ্যে ৬টি সোনার পদক জিততে সক্ষম হয়েছেন। শেষমেশ,মহিলাদের ৩০০ মিটার দৌড়েও সোনা তুলে নিতে সক্ষম হয়েছেন হিমা।

অ্যাথলেটিকো মিটিংক রিটারে হিমা এই সাফল্য অর্জন করেছেন। এই প্ৰতিযোগিতা সমূহ অনুষ্ঠিত হয়েছিল চেক গণ প্ৰজাতন্ত্ৰে। অন্যদিকে চেক গণরাজ্যেই হিমা পঞ্চম সোনা জেতেন। ৪০০ মিটার দৌড়ে পঞ্চম সোনা জিতে হিমা অর্জন করেছেন শ্ৰেষ্ঠত্ব। ৫২.০২ সেকেন্ডে দৌড় শেষ করে সোনা তুলে নেন হিমা।

এরআগে মাত্ৰ ১৫ দিনের মধ্যে হিমা চারচারটি সোনার পদক জেতেন। চেক গণরাজ্যে অনুষ্ঠিত টেবর গ্ৰ্যাঁ প্ৰির ২০০ মিটার ইভেন্টে সোনা জিতেছিলেন হিমা। ২৩.২৫ সেকেন্ডে দৌড় শেষ করে অসম কন্যা জিতেছিলেন সোনা। উল্লেখ্য যে,২০০ মিটার ইভেন্টে হিমা দাস তাঁর ক্যারিয়ারে সেরা প্ৰদর্শন করেছেন ২৩.১০ সেকেন্ডে দৌড় শেষ করে।

এদিকে হিমার এই সাফল্যে আনন্দ প্ৰকাশ করেছেন দেশের ক্ৰীড়াপ্ৰেমী মানুষ। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্ৰী সর্বানন্দ সোনোয়ালের সঙ্গে রাষ্ট্ৰপতি রামনাথ কোবিন্দ,রাজ্যপাল জগদীশ মুখি এবং বলিউডের সেলিব্ৰিটিরাও হিমার এই সাফল্যের জন্য তাঁকে জানিয়েছেন শুভেচ্ছা। অসমের নগাঁও জেলার একটি গ্ৰাম থেকে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক অঙ্গনে হিমার এই সাফল্যের যাত্ৰা সত্যিই প্ৰশংসনীয়। প্ৰকৃতার্থে বলতে হলে হিমার এই জয়যাত্ৰা নতুন প্ৰজন্মের জন্য বাস্তবিকই প্ৰেরণাদায়ক। এভাবে এগিয়ে চললে একদিন অপ্ৰতিরোধ্য হয়ে দাঁড়াবেন হিমা।

অন্যান্য খবরের জন্য পড়ুনঃ ব্যাঘ্ৰ শাবকের নাম হিমা রেখে স্বর্ণ কন্যা হিমা দাসকে সম্মানিত করলো বেঙ্গালুরু বায়োলজিক্যাল পার্ক

অধিক খবরের জন্য ভিডিও দেখুন: এনআরসি ছুট প্ৰকৃত ভারতীয়দের আইনি সাহায্য দেবে প্ৰদেশ কংগ্ৰেস

Next Story