সংবাদ শিরোনাম

দিশপুর ২২১ জন এফটি বিচারপতি নিয়োগ করলো

প্ৰাইভেট টিউশ

গুয়াহাটিঃ রাষ্ট্ৰীয় নাগরিক পঞ্জি(এনআরসি)কর্তৃপক্ষ অযোগ্য ঘোষিত আবেদনকারীদের কবে পর্যন্ত রিজেকশন অর্ডার ইস্যু করবে তা নিয়ে ধোঁয়াশা এখনও কাটেনি। বলা যায়,এনআরসি ছুটদের ক্ষেত্ৰে পুরো চালচিত্ৰ এখনও পরিষ্কার নয়। তবে চূড়ান্ত এনআরসি প্ৰকাশের পরবর্তী পর্যায়ে রাজ্য সরকার তাদের ভূমিকা পালনের কাজ শুরু করে দিয়েছে। গত ৩১ আগস্ট রাজ্যে চূড়ান্ত এনআরসি প্ৰকাশিত হয়। রাজ্য সরকার নবগঠিত অতিরিক্ত ২০০টি ট্ৰাইবুনালের জন্য সদস্যদের(বিচারপতি)নিয়োগের কাজ সম্পন্ন করেছে। তাছাড়া বর্তমানে থাকা ১০০টি বিদেশি ট্ৰাইবুনালের(এফটি)২১টি খালিপদেও নিয়োগ করেছে সদস্য।

গৃহ ও রাজনৈতিক বিভাগ নবগঠিত ২০০টি আতিরিক্ত বিদেশি এবং বর্তমানে থাকা ট্ৰাইবুনালের জন্য সদস্য বা বিচারপতি নিয়োগ সম্পর্কে একটি বিবৃতি জারি করেছে।

দ্য সেন্টিনেলের সঙ্গে আলোচনার সময় গৃহ ও রাজনৈতিক বিভাগের কমিশনার এবং সচিব আশুতোষ অগ্নিহোত্ৰি বলেন,গৌহাটি হাইকোর্টের নির্বাচনের পরিপ্ৰেক্ষিতেই রাজ্য সরকার বিদেশি ট্ৰাইবুনালগুলোর জন্য ২২১জন বিচারপতিকে নিয়োগ করে এক বছর সময়সীমার জন্য। বিচারপতিদের মধ্যে ২০০জনকে নিয়োগ করা হয়েছে অতিরিক্ত বিদেশি ট্ৰাইবুনালগুলিতে। বাকি ২১ জনকে নিয়োগ করা হয়েছে বর্তমান এফটিতে খালি পড়ে থাকা পদগুলি পূরণের জন্য।

তিনি আরও বলেন,অতিরিক্ত এফটিতে নবনিযুক্ত ২২১ জন সদস্যকে ইতিমধ্যেই স্বল্প সময়ের জন্য এফটি জড়ানো হয়েছে যাতে তারা এফটি প্ৰক্ৰিয়ার সঙ্গে নিজেদের মানিয়ে নিতে পারেন। এছাড়া আগামি ২৮ সেপ্টেম্বর থেকে গুয়াহাটির খানাপাড়াস্থিত অ্যাডমিনিস্ট্ৰেটিভ স্টাফ কলেজে তাদের জন্য দুদিনের ওরিয়েন্টেশন প্ৰোগ্ৰামের আয়োজন করা হয়েছে। ওরিয়েন্টেশন কর্মসূচিতে উপস্থিত থাকবেন গৌহাটি হাইকোর্টের বিচারপতি এবং গৃহ ও রাজনৈতিক বিভাগ এবং অসম পুলিশের সীমান্ত শাখার পদস্থ আধিকারিকরা।

কমিশনার ও সচিব আরও উল্লেখ করেন,অতিরিক্ত এফটিগুলোতে খুব শীঘ্ৰই আরও ২০০০ কর্মী নিয়োগ করা হবে। আসাম পুলিশ রিকুইটমেন্ট বোর্ড(এপিআরবি)সাক্ষাৎকার প্ৰক্ৰিয়া ইতিমধ্যেই সম্পূর্ণ করেছে। আমরা আশা করছি এব্যাপারে ফলাফলও শীঘ্ৰই ঘোষণা করা হবে। সরকারের পরিকল্পনা রয়েছে ২০০টি অতিরিক্ত এফটির কাজ চলতি বছরের অক্টোবরেই শুরু করার। এগুলো কার্যক্ষম হলে সারা রাজ্যে মোট ৩০০টি এফটি কাজ করবে।

অসম সরকার চূড়ান্ত এনআরসি প্ৰকাশের আগে ১০০০টি এফটি স্থাপনের জন্য স্বরাষ্ট্ৰ মন্ত্ৰকের কাছে(এমএইচএ)রস্তাব রেখেছিল। তবে স্বরাষ্ট্ৰমন্ত্ৰক ৪০০টি অতিরিক্ত এফটি স্থাপনের অনুমোদন জানায়। এনআরসি প্ৰকাশের পরবর্তী পর্যায়ে এই সব এফটিগুলোর দায়িত্ব খুবই গুরুত্বপূর্ণ হবে। চূড়ান্ত এনআরসি ছুট ব্যক্তিরা রিজেকশন অর্ডার পাওয়ার ১২০ দিনের মধ্যে এই সব এফটিতে আপিল করতে পারবেন। যে সব ব্যক্তিরা আবেদন করবেন না সেই সব ব্যক্তিদের নাম এফটিতে পাঠানোর সংশ্লিষ্ট জেলা প্ৰশাসনের পূর্ণ ক্ষমতা থাকবে। এব্যাপারে আবেদনকারীদের শুনানি ও প্ৰাসঙ্গিক নথি অনুপুঙ্খভাবে পরীক্ষা নিরীক্ষার পর এফটির বিচারপতিরা তাঁদের রায় দেবেন,সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি ভারতীয় কি না এবং এনআরসিতে নাম ওঠানোর ব্যাপারে তারা যোগ্য না অযোগ্য।

 

অন্যান্য খবরের জন্য পড়ুনঃ এনআরসির তথ্য সম্পর্কে অন্ধকারে দিশপুর,হাজেলাকে চিঠি সরকারের

অধিক খবরের জন্য ভিডিও দেখুন: Tinsukia Police conducts awareness meeting on Traffic at Commerce College