Top
Begin typing your search above and press return to search.

৪০০ সার্ভাইল্যান্স কর্মী ও ৭২৮ জন স্টাফ নার্সকে নিয়োগপত্ৰ দিল স্বাস্থ্য বিভাগ

৪০০ সার্ভাইল্যান্স কর্মী ও ৭২৮ জন স্টাফ নার্সকে নিয়োগপত্ৰ দিল স্বাস্থ্য বিভাগ

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  1 Feb 2020 10:25 AM GMT

গুয়াহাটিঃ রাজ্যে স্বাস্থ্য পরিষেবা উন্নত করার লক্ষ্যে স্বাস্থ্য বিভাগ শুক্ৰবার ন্যাশনাল হেলথ মিশন অসম-এর অধীন সার্ভাইল্যান্স কর্মী এবং ৭২৮ জন স্টাফ নার্সকে নিয়োগপত্ৰ বিতরণ করেছে। জিএমসিএইচ প্ৰেক্ষাগৃহে শুক্রবার আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে নিয়োগপত্ৰগুলি বিতরণ করা হয়। স্বাস্থ্যমন্ত্ৰী হিমন্তবিশ্ব শর্মা অনুষ্ঠানে মুখ্য অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে ভাষণ দিতে গিয়ে শর্মা রাজ্য সরকারের গৃহীত বিভিন্ন স্বাস্থ্য প্ৰকল্প এবং সেগুলির সাফল্যের কথা বর্ণনা করেন। তিনি বলেন,প্ৰতি বছরই রাজ্য সরকার জিএনএম ছাত্ৰদের নিয়োগের কাজ সফলভাবে রূপায়ণ করে চলেছে। এবছরও জিএনএম-এর নতুন ছাত্ৰদের নিয়োগের ব্যবস্থা করতে সরকার সফল হয়েছে। তিনি বলেন,রাজ্যে একের পর এক মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল হচ্ছে। তরুণ প্ৰজন্মের জন্য এই সব মেডিক্যাল কলেজে নিয়োগের সম্ভাবনা তৈরি হবে। স্বাস্থ্যমন্ত্ৰী বলেন ২০২৫ সালের আগেই রাজ্যের অধিকাংশ জেলায় মেডিক্যাল কলেজ হয়ে যাবে এবং প্ৰতি বছর দুটি নতুন সরকারি হাসপাতাল স্থাপন করা হবে প্ৰত্যেক জেলা সদরে। রাজ্যে ১৯টি ক্যান্সার হাসপাতাল স্থাপনেরও সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার এবং ৯টি হাসপাতালের নির্মাণ কাজ ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে-জানান শর্মা। রাজ্যে ন্যাশনাল হেলথ মিশনের সাফল্য সম্পর্কে শর্মা বলেন,২০১৬ সাল থেকে রাজ্যের স্বাস্থ্য ক্ষেত্ৰে ৪০০ জন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক,৯০০ জন এমবিবিএস ডাক্তার,২৯০ জন আয়ুর্বেদিক চিকিৎসক,১১৩ জন দন্ত চিকিৎসক,৩ হাজার স্টাফ নার্স,৫ হাজার এএনএম নার্স,১৯৬ জন ফার্মাসিস্ট,৫৫ জন ল্যাবরেটরি টেকনিশিয়ান,২০৯ জন কমিউনিটি হেলথ অফিসার,১৬২ জন প্যারা মেডিক্যাল স্টাফ এবং ৬৯৬ জন ম্যানেজমেন্ট স্টাফ নিয়োগ করা হয়েছে। অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের প্ৰিন্সিপাল সেক্ৰেটারি সমীর কুমার সিনহা,ডিরেক্টর অফ মেডিক্যাল এডুকেশন ডাঃঅনুপ বর্মন প্ৰমুখ উপস্থিত ছিলেন।

অন্যান্য খবরের জন্য পড়ুনঃ অসম সম্পর্কে বিতর্কিত মন্তব্য করায় সরজিল ইমামের বিরুদ্ধে মামলা করবে রাজ্য সরকার

অধিক খবরের জন্য ভিডিও দেখুন: Meet Australian Researcher Stephen Moore who’s researching on indigenous languages of NE

Next Story