Top
Begin typing your search above and press return to search.

মেরাপানিতে আবার জাকিয়ে বসছে অবৈধ মদের ব্যবসা

মেরাপানিতে আবার জাকিয়ে বসছে অবৈধ মদের ব্যবসা

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  5 Oct 2019 11:21 AM GMT

মেরাপানিঃ চোলাই মদ খেয়ে রাজ্যে কিছুদিন আগে শতাধিক লোকের মৃত্যু হয়েছিল। গোটা রাজ্যকে নাড়িয়ে দিয়েছিল ওই ঘটনা। সেই মর্মান্তিক ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই গোলাঘাট জেলার অসম-নাগাল্যান্ড সীমান্তবর্তী মেরাপানি মহকুমার বিভিন্ন স্থানে লালিগুড়ের অবাধ ব্যবসা আবার জাকিয়ে বসার অভি্যোগ পাওয়া গিয়েছে। প্ৰাপ্ত তথ্য অনু্যায়ী,প্ৰদীপ গুপ্তা নামে মেরাপানির একজন কুখ্যাত লালিগুড় ব্যবসায়ী ওই এলাকায় অবাধে লালিগুড়ের ব্যবসা করছেন। লালিগুড় দিয়ে তৈরি বিষাক্ত মদ খেয়ে কয়েক মাস আগে উজানের গোলাঘাট ও যোরহাট জেলায় মৃত্যুর মিছিল শুরু হয়েছিল। বিষ মদ কাণ্ডে শতাধিক শ্ৰমিক শ্ৰেণির মানুষ প্ৰাণ হারিয়েছিলেন। ওই ঘটনার পরপরই রাজ্য সরকার এ রাজ্যে লালিগুড়ের ব্যবসা নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছিল। বিষ মদের ওই মর্মান্তিক ঘটনার পরও একাংশ অসাধু ব্যবসায়ী যোরহাট এবং মেরাপানি মহকুমা সহ গোলাঘাট জেলায় চোলাই মদের ডেরাগুলোতে লালিগুড় সরবরাহ করে চলেছে। এখানে উল্লেখ করা যেতে পারে যে বিষ মদ কাণ্ডের পর মদ মুক্ত বাহিনী অসম এবং ওই সমস্ত এলাকার কিছু সমাজ কর্মীর পৃষ্ঠপোষকতায় লালিগুড় ব্যবসায়ীদের গুদামগুলো সিল করে দেওয়া হয়েছিল।

কিন্তু কোনও এক রহস্যজনক কারণে ওই গুদামগুলো ফের খুলে দেওয়া হয় এবং লালিগুড়ের ব্যবসাও অবাধ গতিতে চলতে শুরু করে। লালিগুড়ের এই সমস্ত ব্যবসায়ীরা জামুগুড়ি,কাছোমারি,গঙ্গা এবং এমনকি কার্বি আংলং জেলার চিলনিজান অবধি তাদের ব্যবসা সম্প্ৰসারণ করার খবর পাওয়া গিয়েছে। জানা গেছে এই ব্যবসায়ী দেরগাঁও ও রঙ্গামাটি থেকে আনা লালিগুড় বিক্ৰি করেছিলেন। ব্যবসায়ী পরে উত্তর প্ৰদেশ থেকে লালিগুড় এনে গোলাঘাট জেলা ও বাইরে এই গুড়ের ব্যবসা চালাতে শক্তিশালী নেটওয়র্ক গড়ে তুলেছেন।

অন্যদিকে মেরাপানি থানার অধীন পুলিবাগানের বিভিন্ন স্থানে অবৈধ মদের ব্যবসা আবার জাকিয়ে বসার অভিযোগ উঠেছে। একটি সূত্ৰ এই প্ৰতিবেদককে জানিয়েছেন,বিষ মদ কাণ্ডের ওই চাঞ্চল্যকর ঘটনার পর অবৈধ মদের ব্যবসা বন্ধ হয়েছিল যদিও এখন আবার তা ক্ৰমশ চালু হয়েছে। এভাবেই আগামি দিনগুলোতে মদের নেশায় বুঁদ হতে গ্ৰাহকের সংখ্যাও পাল্লা দিয়ে বাড়বে বলে আশংকা করা হচ্ছে।

এব্যাপারে জেলা আবগারি বিভাগ এবং মেরাপানি থানার নিরপেক্ষ ভূমিকার সমালোচনা করে একাংশ সচেতন মানুষ সময় থাকতে এই বিষটির প্ৰতি নজর দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন। তারা জেলাশাসককে এসম্পর্কে ব্যবস্থা নিতে অনুরোধ করেছেন।

অন্যান্য খবরের জন্য পড়ুনঃ ৬৫ বছর বয়সী পিতাকে পিটিয়ে মারার অভিযোগ পুত্ৰের বিরুদ্ধে

অধিক খবরের জন্য ভিডিও দেখুন: Durga Puja 2019: Durga Puja Celebrations at Bholanath Mandir

Next Story