Begin typing your search above and press return to search.

শীঘ্ৰই দেশ একজন ‘চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ’ পাচ্ছেঃ মোদি

শীঘ্ৰই দেশ একজন ‘চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ’ পাচ্ছেঃ মোদি

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  17 Aug 2019 9:56 AM GMT

নয়াদিল্লিঃ প্ৰধানমন্ত্ৰী নরেন্দ্ৰ মোদি তিন সামরিক বাহিনীর সঙ্গে সরকারের সমন্বয় বজায় রাখার লক্ষ্যে একজন চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ(সিডিএস)পদ সৃষ্টির কথা ঘোষণা করলেন। প্ৰতিরক্ষা দপ্তরের বিভিন্ন কমিটির এই সুপারিশটি দীর্ঘদিন ধরে ঝুলিয়ে রাখা হয়েছিল। স্বাধীনতা দিবসে দিল্লির লালকেল্লা থেকে জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেবার সময় প্ৰধানমন্ত্ৰী বলেছেন,‘আমাদের সশস্ত্ৰ বাহিনী গোটা দেশের অহংকার। তাই তিন বাহিনীর মধ্যে পারস্পরিক সম্পর্কের বন্ধন আরও তীক্ষ্ণ ও মজবুত করা একান্ত জরুরি। এই সমন্বয়ের মাধ্যমে আমাদের সশস্ত্ৰ বাহিনীর ভিত আরও খাসা ও সক্ৰিয় হবে। এই উদ্দেশ্য সামনে রেখেই একজন চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফের(সিডিএস)পদ অচিরেই সৃষ্টি করা হবে। তাঁর মতে শীঘ্ৰই দেশ একজন সিডিএস পাচ্ছে। সশস্ত্ৰ বাহিনীর তিন শাখারই কাজ দেখবেন নতুন সিডিএস’।

প্ৰতিরক্ষামন্ত্ৰী রাজনাথ সিং প্ৰধানমন্ত্ৰীর এই ঘোষণাকে স্বাগত জানিয়েছেন। এক টুইটে রাজনাথ বলেছেন,তিন বাহিনীর মধ্যে সংস্কার সাধনের প্ৰয়োজনীয়তা ও সমন্বয়ের বাঁধন আরও নিরেট ও শক্তিশালী করার লক্ষ্যেই প্ৰধানমন্ত্ৰী মোদি সিডিএস প্ৰতিষ্ঠান গড়ার কথা ঘোষণা করেছেন। এটা ভারতের সার্বিক নিরাপত্তার ক্ষেত্ৰে একটা ইতিবাচক প্ৰভাব ফেলবে’-টুইটে উল্লেখ করেছেন প্ৰতিরক্ষা মন্ত্ৰী।

কারগিল যুদ্ধের সময়ই আঁচ করা গিয়েছিল,তিন সামরিক বাহিনী অর্থাৎ আর্মি,নেভি ও এয়ারফোর্সের মধ্যে সমন্বয়ের প্ৰয়োজনীয়তার কথা। কারগিল রিভিউ কমিটি একজন চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফের অধীনে স্থল বাহিনী,নৌবাহিনী,নৌসেনা ও বায়ুসেনার মধ্যে সমন্বয় গড়ে তোলার সুপারিশ করেছিল। কারগিল যুদ্ধের পর দীর্ঘ কুড়ি বছরে এই বিষয়টি নিয়ে কোনও পাকাপোক্ত সিদ্ধান্ত গ্ৰহণ করা হয়নি। মোদ্দা কথায় ‘চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ’ হবে সরকারের প্ৰতিরক্ষা ও সামরিক বিষয়ের মূল উপদেষ্টা। অবসরপ্ৰাপ্ত লেফটেনাণ্ট জেনারেল ডিবি শেখতকর-এর নেতৃত্বে একটি বিশেষজ্ঞ কমিটিও চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ নিয়োগের সুপারিশ করেছিল অনেক আগেই।

সরকার সশস্ত্ৰ বাহিনীর ক্ষমতা বাড়াতে এবং প্ৰতিরক্ষা খরচে পুনরায় ভারসাম্য আনার লক্ষ্যে ব্যবস্থা গ্ৰহণের সুপারিশ পেশ করার জন্য অবসরপ্ৰাপ্ত লেফটেনাণ্ট জেনারেল ডিবি শেখতকরকে ১১ সদস্যের একটি কমিটির প্ৰধান হিসেবে নিয়োগ করেছে। কমিটি সুপারিশ করেছে,একজন ফোর স্টার বিশিষ্ট ডিফেন্স স্টাফ প্ৰতিরক্ষা মন্ত্ৰীর সামরিক উপদেষ্টা হিসেবে কাজ করবেন।

কারগিল যুদ্ধের সময়কালের সেনা প্ৰধান ভেদ প্ৰকল্প মালিক(অবসরপ্ৰাপ্ত)প্ৰধানমন্ত্ৰীর এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন। এক টুইটে তিনি সিডিএস ইন্সটিটিউশন গড়া নিয়ে প্ৰধানমন্ত্ৰীর এই ঐতিহাসিক পদক্ষেপের জন্য ধন্যবাদ জানিয়ে বলেছেন,এতে আমাদের জাতীয় নিরাপত্তা আরও শক্তিশালী হওয়া ছাড়াও অর্থনৈতিক ক্ষেত্ৰেও সাশ্ৰয় হবে। এই পদক্ষেপ তিন বাহিনীর মধ্যে সমন্বয়ের বাঁধন আরও মজবুত করবে-এর জন্য প্ৰধানমন্ত্ৰীকে স্যালুট-টুইটে উল্লেখ করেছেন তিনি।

অন্যান্য খবরের জন্য পড়ুনঃ জম্মু ও কাশ্মীর, লদাখে সূচনা হলো এক নতুন অধ্যায়ের,আবার হাসবে কাশ্মীরঃ মোদি

অধিক খবরের জন্য ভিডিও দেখুন: College Girl allegedly attacked by Lady in Demow, Students Block NH37

Next Story