Top
Begin typing your search above and press return to search.

নাহরকটিয়ায় খাঁচাবন্দি প্ৰকাণ্ড চিতা,ডিব্ৰুগড়েও বাঘের আতঙ্ক

নাহরকটিয়ায় খাঁচাবন্দি প্ৰকাণ্ড চিতা,ডিব্ৰুগড়েও বাঘের আতঙ্ক

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  23 Aug 2019 1:27 PM GMT

নাহরকটিয়ার লেঙেরিজান চা বাগান থেকে আজ একটি প্ৰকাণ্ড চিতাকে খাঁচা বন্দি করা হয়। বাঘটি ওই এলাকায় গত কিছু দিন থেকে ত্ৰাসের সৃষ্টি করেছিল। বন বিভাগের পেতে রাখা খাঁচায় আটকা পড়ে বাঘটি।

এদিকে ডিব্ৰুগড়ের পাঁচ আলিতে বৃহস্পতিবার সকালে প্ৰায় ৪০-৪৫ কেজি ওজনের একটি চিতা রীতিমতো ত্ৰাসের সৃষ্টি করে। চিতা দেখেই লোকজন প্ৰাণ নিয়ে এদিক-ওদিকে পালাতে শুরু করেন। নিকটবর্তী ব্ৰহ্মপুত্ৰ এলাকা থেকে চিতাটি ওই এলাকায় এসেছিল বলে সন্দেহ করা হচ্ছে। উন্মুক্ত স্থানে আসার আগে চিতাটি ওই এলাকার একটি নির্মীয়মাণ বিলিঙে আশ্ৰয় নিয়েছিল। বাঘটি খোলা জায়গায় বেরিয়ে আসতেই পথালতি মানুষ চিতাটিকে দেখে ফেলেন। বাঘ দেখে স্থানেএয় লোকেরা প্ৰাণ হাতে নিয়ে যে যেদিকে পারেন ছুটতে থাকেন। নিমেষের মধ্যে এক হুলুস্থুল পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। ছোটছুটির সময় চিতার থাবায় লক্ষীন্দর রাই ওরফে কালিয়া নামের এক ব্যক্তি আহত হন। তাঁকে সঙ্গে সঙ্গে আসাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে চিতাটি জনৈক রমেন্দ্ৰ লাল ঘোষের বাড়ির ছাদের নিচে আশ্ৰয় নেয়। বাঘ দেখার পরপরই মানুষ বন বিভাগকে খবর দেন। কিন্তু বন কর্মীরা ঘটনা স্থলে আসতে প্ৰায় দুঘণ্টা লাগিয়ে দেন। পরে ঘটনাস্থলে এসে বনকর্মীরা পরিস্থিতির খোঁজ নেন। বন কর্মীরা আসার পরও চিতাটিকে ওই স্থান থেকে সরানোর কোনও পদক্ষেপ নিতে পারেননি। কারণ ট্ৰ্যাঙ্কুলার আনতে হলে তিনসুকিয়ার গুইজান আনতে হবে।

এরপর বেলা প্ৰায় দুটো নাগাদ ওুাইল্ড লাইফ ট্ৰাস্টের একটি দল ট্ৰ্যাঙ্কুলাইজার ও খাঁটা সহ ঘটনাস্থলে এসে পৌঁছয়। বন কর্মীরা পরে সফলভাবে ট্ৰ্যাঙ্কুলাইজ করে চিতাটিকে নিরাপদে লোকালয় থেকে নিয়ে যান। চিতাকে নিয়ে যাওয়ার পর সচেতন নাগরিকরা প্ৰশ্ন তোলেন,জেলায় ট্ৰ্যাঙ্কুলাইজার নেই কেন ট্ৰ্যাঙ্কুলাইজারের অভাবে যদি উন্মত্ত মানুষের হাতে চিতাটি খুন হতো তাহলে তার দায়িত্ব কেনিতো-প্ৰশ্ন তোলেছেন তারা।

অন্যান্য খবরের জন্য পড়ুনঃ যোরহাটে খাঁচাবন্দি চিতা

অধিক খবরের জন্য ভিডিও দেখুন: CRPF seized 10 kg of Ganja in Sivasagar | The Sentinel News | Assam News

Next Story