Begin typing your search above and press return to search.

রাজ্যের মুসলিমদের অসমিয়াকে মাতৃভাষা হিসেবে গ্ৰহণ করতে বলবো,সাহিত্য সভাকে আশ্বাস আজমলের

রাজ্যের মুসলিমদের অসমিয়াকে মাতৃভাষা হিসেবে গ্ৰহণ করতে বলবো,সাহিত্য সভাকে আশ্বাস আজমলের

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  25 Jan 2020 9:18 AM GMT

গুয়াহাটিঃ মৌলানা বদরুদ্দিন আজমল অসম সাহিত্য সভাকে আশ্বাস দিয়েছেন যে আসন্ন জনগণনার সময় অসমের মুসলমানরা যাতে নিজেদের অসমিয়া বলে পরিচয় দেন এবং অসমিয়াকেই মাতৃভাষা লেখান তার জন্য তিনি তাঁদের আবেদন জানাবেন। ২০২০-র ২০ এপ্ৰিল থেকে অসমে জনগণনার কাজ শুরু হচ্ছে।

অসম সাহিত্য সভা আসমিয়া ভাষা সংরক্ষণ এবং সম্প্ৰচারের উদ্দেশে শুক্ৰবার এখানে আজমল ফাউন্ডেশনের সঙ্গে এক বৈঠক ডেকেছিল। এই আলোচনা সভায় আজমল ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে প্ৰধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাংসদ বদরুদ্দিন আজমল। সভায় অসম সাহিত্য সভা রাজ্যে অসমিয়া ভাষার সংরক্ষণ ও সংবর্ধনে আজমলের সহযোগিতা চায়। সাহিত্যসভা চায়,রাজ্যের মুসলিমরা নিজেদের অসমিয়া বলে পরিচয় দিন এবং অসমিয়াকে নিজেদের মাতৃভাষা হিসেবে গ্ৰহণ করুন। এটা বাস্তবে রূপায়িত করতে হলে আসন্ন জনগণনায় রাজ্যের মুসলিমদের অসমিয়া ভাষাকেই সর্বাগ্ৰে প্ৰাধান্য দেওয়া উচিত।

অসম সাহিত্য সভার ওই প্ৰস্তাবে আজমলও ইতিবাচক সাড়াই দিয়েছেন। তবে আজমল বলেন,‘একটা শ্ৰেণি রাজ্যের একটা নির্দিষ্ট ধর্মীয় জনগোষ্ঠীকে লাগাতার টার্গেট করছে। এটা খুবই পীড়াদায়ক। তিনি বলেন,অসমিয়া ভাষা ও সাহিত্যের বিকাশ ও শ্ৰীবৃদ্ধির জন্য আজমল ফাউন্ডেশন ইতিমধ্যেই কাজ শুরু করে দিয়েছে। আজমল বলেন,এর আগে যে জনগণনা হয়েছিল তাতে রাজ্যের চর এবং অন্যান্য এলাকায় বসবাসকারী সংখ্যালঘু মানুষ নিজেদের অসমিয়া বলে লিখিয়েছেন এবং অসমিয়া ভাষাকেই তাদের ভাষা বলে পরিচয় দিয়েছেন। এই পরিস্থিতিতে রাজ্যের একটা ধর্মীয় জনগোষ্ঠীর ওপর রাজনৈতিক আক্ৰমণ কোনওভাবেই যুক্তিসঙ্গত নয়’।

আজমল অসম সাহিত্যসভাকে আশ্বস্ত করে বলেন,২০২১ সালেই রাজ্যে জনগণনা হচ্ছে। ওই সময় রাজ্যের চর ও অন্যান্য এলাকায় বসবাসকারী সংখ্যালঘু মানুষ যাতে নিজেদের মাতৃভাষা অসমিয়া বলে পরিচয় দেন এবং এই ধারা তারা যাতে বজায় রাখেন তার জন্য তিনি কাজে নেমে পড়বেন। তিনি এই সমস্ত সংখ্যালঘু মানুষকে ভূমিপুত্ৰের মর্যাদা দেওয়ার জন্য সাহিত্য সভার প্ৰতি আবেদন জানান।

এদিকে আজমল ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে দশটি কম্পিউটার সেট ও দুটি প্ৰিন্টার এদিন অসম সাহিত্য সভাকে দান করা হয়। সাহিত্য সভার প্ৰতিটি শাখায় কম্পিউটার সেট দেওয়ারও প্ৰতিশ্ৰুতি দিয়েছে আজমল ফাউন্ডেশন।

অন্যান্য খবরের জন্য পড়ুনঃ জনগণনার সঠিক তথ্য সুনিশ্চিত করতে বিশেষভাবে তৈরি মোবাইল অ্যাপ

অধিক খবরের জন্য ভিডিও দেখুন: Stage Set for Republic Day 2020 Celebrations in Guwahati

Next Story