ন্যাশনাল

দুর্ভাগ্য বিরাট ব্ৰিগেডের পিছু ছাড়ছে না,বিসিসিআই টিকিটের ব্যবস্থা করতে পারেনি

বিসিসিআই

গুয়াহাটিঃ দুর্ভাগ্য এখন টিম ইন্ডিয়ার পিছু ছাড়ছে না। বিশ্বকাপের সেমি ফাইনালে নিউজিল্যান্ডের কাছে পরাজয়ের পর বিরাট বাহিনী দেশে ফিরে আসতে মরিয়া হয়ে উঠেছিল। কিন্তু দুর্ভাগ্য সেখানেও তাড়িয়ে বেড়াচ্ছে তাদের। কোহলিদের জোটেনি পর্যাপ্ত বিমানের টিকিট।

কিউইদের কাছে সেমিফাইনালে হেরে ম্যান-ইন ব্লু-র ছেলেরা এমনিতেই হতাশ,পরাজয়ের গ্লানি মন থেকে মুছে ফেলতে পারছে না। দেশে ফেরার জন্য অধীর ছিল তারা। কিন্তু বিমানের পর্যাপ্ত টিকিট না জোটার মতো আরও একটা খারাপ খবর তাদের শুনতে হলো। বিসিসিআই টিম ইন্ডিয়ার ক্ৰিকেটারদের দাবি পূরণ করতে পারেনি। পারেনি টিমের ছেলেদের জন্য বিমানের টিকিটের ব্যবস্থা করতে। তাই বিরাট ব্ৰিগেড আগামি রবিবার পর্যন্ত ইংল্যান্ডে থাকতে বাধ্য হচ্ছে। ওই দিনই হচ্ছে বিশ্বকাপের ফাইনাল ম্যাচ।

মনে হচ্ছে বিশ্বকাপ যেন টিম ইন্ডিয়াকে ছাড়তে চাইছে না। দুর্ভাগ্যবশত বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে যাওয়ার পরও টিম ইন্ডিয়াকে ইংল্যান্ডেই থাকতে হচ্ছে রবিবার অবধি। নিয়তির কি নিষ্ঠুর পরিহাস। এবার বিশ্বকাপে প্ৰতিটি ম্যাচে শানদার পারফরম্যান্স করেছে ভারত। কিন্তু সেমি ফাইনাল ম্যাচে এভাবে পাততাড়ি গুটিয়ে নিতে হবে বিরাট ব্ৰিগেডের চরম নিন্দুকরাও তেমনটা ভাবেননি। কিন্তু অঘটন তো ঘটেই গেল। শেষ রক্ষা করতে পারলেন না ভারতের বাঘা বাঘা ব্যাটসম্যানরা।

তবে ছেলেরা ম্যানচেস্টারে টিম হোটেল ছেড়ে দিয়ে শহরের অন্য হোটেলে আশ্ৰয় নিয়েছেন। বিসিসিআই-র জনৈক বরিষ্ঠ কর্মকর্তা বলেছেন,টিমের অধিকাংশ ছেলে ১৪ জুলাই অবধি ম্যানচেস্টারে থাকবে এবং ওখান থেকেই দেশে ফিরবে। তবে গতকাল টিম ইন্ডিয়ার ছেলেদের জন্য বিমানের টিকিট বুক করা হয়েছে।

বিসিসিআই বরাবরই দলের জন্য টিকিট যথাসময়ে বুক করার চেষ্টা করেছে। কিন্তু এবার তারা সঠিক সময়ে টিকিট বুক করতে পারেনি। ১৪ জুলাই ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ডের মধ্যে ফাইনাল ম্যাচ অনুষ্ঠিত হচ্ছে। তাই ওইদিন ইংল্যান্ডে থাকাটাই টিম ইন্ডিয়ার ছেলেদের বার বারই যে বিঁধবে তা সহজেই অনুমেয়।

প্ৰাপ্ত রিপোর্ট অনু্যায়ী অধিনায়ক বিরাট কোহলি,এমএস ধোনি,কোচ এবং কিছু সাপোর্ট স্টাফ দেশে ফিরে আসতে ব্যগ্ৰ। অন্যান্য খেলোয়াড়রা ফাইনাল ম্যাচ পর্যন্ত থেকে যাওয়ার পরিকল্পনা করেছেন। কয়েকজন আবার দুসপ্তাহের ছুটি কাটাতে ইংল্যান্ড থেকে অন্যত্ৰ চলে গেছেন।

বিসিসিআই-র একজন কর্মকর্তা বলেন,খেলোয়াড়রা ব্যাচ অথবা গ্ৰুপ করে তাদের অভীষ্ট লক্ষ্যে যাবেন। তবে সেটা নির্ভর করছে বিমানের টিকিটের ওপর।

 

 

অন্যান্য খবরের জন্য পড়ুনঃ বিসিসিআই-এর খসড়া সংবিধান অনুমোদন করল সুপ্ৰিমকোর্ট