Top
undefined
Begin typing your search above and press return to search.

করোনার সংক্ৰমণ ঠেকাতে ভারত-মায়ানমার সীমান্ত সিল করার দাবি মিজোরাম কংগ্ৰেসের

করোনার সংক্ৰমণ ঠেকাতে ভারত-মায়ানমার সীমান্ত সিল করার দাবি মিজোরাম কংগ্ৰেসের

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  9 March 2020 11:47 AM GMT

করোনা ভাইরাসের সম্ভাব্য সংক্ৰমণ রোধের উদ্দেশ্যে ভারত-মায়ানমার সীমান্ত সিল করার দাবি উত্থাপন করেছে মিজোরাম প্ৰদেশ কংগ্ৰেস। উল্লেখ্য যে সারা বিশ্বজুড়ে ত্ৰাস সৃষ্টিকারী করোনা ভাইরাসের দ্বারা বর্তমান সময়ে ভারতে ৪২ জন ব্যক্তি আক্ৰান্ত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে। পরিস্থিতির এই ভয়বহতার প্ৰতি লক্ষ্য রেখে মিজোরাম প্ৰদেশ কংগ্ৰেস রাজ্য সরকারকে ভারত-মায়ানমার সীমান্ত সিল করার পদক্ষেপ নেওয়ার দাবি জানিয়েছে। ভারত-মায়ানমারের একেবারে গা ঘেঁষে রয়েছে মিজোরাম। মিজোরাম ও মায়ানমারের মধ্যে সীমান্তের দূরত্ব ৫১০ কিলোমিটার। একথা প্ৰকাশ করে প্ৰদেশ কংগ্ৰেস বলেছে,মায়ানমারের নাগরিকরা হামেশাই মিজোরামে প্ৰবেশ করে থাকে। এভাবে চিনের মানুষজনও রাজ্যে আসে বলে উল্লেখ করেছে প্ৰদেশ কংগ্ৰেস। এসমস্ত ক্ষেত্ৰে কোনও ধরনের স্বাস্থ্য পরীক্ষার ব্যবস্থা নেই। ফলে যেকোনও মুহূর্তে রাজ্যে করোনা ভাইরাসের প্ৰাদুর্ভাব ঘটার আশঙ্কা উড়িয়ে দেওয়া যায় না।

চিনের উহানে করোনা ভাইরাসের প্ৰথম প্ৰাদুর্ভাব ঘটে। এই রোগের থাবায় চিনে সনস্ৰাধিক মানুষ প্ৰাণ হারিয়েছেন। সেইহেতু তাৎক্ষণিকভাবে ভারত-মায়ানমার সীমান্ত সিল করার জন্য দাবি তুলেছে মিজোরাম প্ৰদেশ কংগ্ৰেস। একটা বেসরকারি সংগঠন(এনজিও)ভারত-মায়ানমার সীমান্তে বেড়া বসানোর দাবি জানিয়েছে। মিজোরাম চাকমা অ্যালায়েন্স এগেইনস্ট ডিসক্ৰিমিনেশন নামের এই সংগঠনটি অভিযোগ করেছে যে বিগত কিছুদিনে ভারত-মায়ানমার সীমান্তের মিজোরামে চোরাই পথে আনা একশো কোটি টাকার বিভিন্ন সামগ্ৰী সরকারি সংস্থা বাজেয়াপ্ত করে। এভাবেই পরিস্থিতি জটিল হয়ে উঠছে বলে সংগঠনের সভাপতি পরিতোষ চাকমা মন্তব্য করে বলেন যে করোনা ভাইরাস প্ৰতিরোধের উপরিও চোরাই ব্যবসা রোধের জন্য সরকারের ক্ষিপ্ৰতার সঙ্গে ব্যবস্থা গ্ৰহণ করা উচিত। অন্যদিকে,মিজোরামে করোনা রোধে স্বাস্থ্য পরীক্ষার ব্যবস্থা করা হয়েছে। এই উদ্দেশ্যে পুরো রাজ্যে সাতটি পরীক্ষা কেন্দ্ৰ স্থাপন করা হয়েছে ইতিমধ্যেই।

তাছাড়া,বিমানবন্দরে যাত্ৰীর স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য রাজ্য সরকার বিশেষ চিকিৎসা গ্ৰুপ গঠন করেছে। স্বাস্থ্য বিভাগের সূত্ৰ অনু্যায়ী,গত কয়েকদিনে এ রাজ্যে ৪১ জন বাইরের লোক এসেছেন। তবে এই সমস্ত লোকেদের স্বাস্থ্য পরীক্ষার ব্যবস্থা করা হয়েছে। অন্যদিকে,মিজোরাম স্বাস্থ্য বিভাগের তথ্য অনু্যায়ী রাজ্যে বর্তমান সময়ে ১৪,৬৪০ জন লোকের স্বাস্থ্য পরীক্ষার ব্যবস্থা করা গেছে। পরীক্ষার জন্য ৭টি কেন্দ্ৰও স্থাপন করা হয়েছে।

অন্যান্য খবরের জন্য পড়ুনঃ গোমূত্ৰ,গোবর করোনা ভাইরাস আক্ৰান্তকে আরোগ্য করে,দাবি বিধায়িকা হরিপ্ৰিয়ার

অধিক খবরের জন্য ভিডিও দেখুন: Doul Govinda Temple agog as Holi begins

Next Story