Top
Begin typing your search above and press return to search.

এনআরসি ব্যর্থতার এক দলিলঃ উপমণ্যু হাজরিকা

এনআরসি ব্যর্থতার এক দলিলঃ উপমণ্যু হাজরিকা

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  3 Sep 2019 1:27 PM GMT

গুয়াহাটিঃ প্ৰব্ৰজন বিরোধী মঞ্চের আহ্বায়ক উপমণ্যু হাজরিকা চূড়ান্ত রাষ্ট্ৰীয় নাগরিক পঞ্জির(এনআরসি)কঠোর সমালোচনা করে বলেছেন,চূড়ান্ত এনআরসি থেকে মাত্ৰ ১৯ লক্ষ লোকের নাম বাদ পড়েছে। এই খসড়া ৪০ বছরের পুরনো অসম আন্দোলনের ব্যর্থতারই শংসাপত্ৰ। তাঁর মতে এই তালিকার মাধ্যমে অসম আন্দোলনের ৮৫৫ জন শহিদের আত্মত্যাগকে অপমান করা হয়েছে। তিনি অভিযোগ করেন,নেতারা ভূমিপুত্ৰ মানুষের আস্থা ভেঙে দিয়েছেন এবং এখন তারা নিজেদের দায়িত্ব এড়িয়ে যেতে ব্যস্ত।

‘মুখ্যমন্ত্ৰী সর্বানন্দ সোনোয়াল যিনি গত বছর দাবি করেছিলেন এনআরসির খসড়া ভূমিপুত্ৰদের অস্তিত্ব রক্ষা করবে। কিন্তু এখন সুর পাল্টে বিদেশি চিহ্নিতকরণে ব্যর্থতার দায়িত্ব সুপ্ৰিমকোর্ট ও এনআরসি কর্মকর্তার ওপর চাপাচ্ছেন’-বলেন হাজরিকা।

মঞ্চ নেতা আরও অভি্যোগ করেন,ব্যাপক সংখ্যক বিদেশির নাম ঠাঁই পাওয়া এই এনআরসি ভূমিপুত্ৰ মানুষের আত্ম বিশ্বাস ও দৃঢ়তার ওপর চরম আঘাত হেনেছে। অসম আন্দোলনের নেতারা যদি বর্তমানে সরকারের অংশ হতেন তাহলে তারা নাগরিকত্ব দানে ১৯৭১ সালকে কাট অফ ইন্ডিয়া হিসেবে মেনে নিতেন না। এরচেয়ে সারা দেশের মতো ১৯৪৮ সালের ১৯ জুলাই অসমের ক্ষেত্ৰেও কাট অফ ইয়ার হওয়াই ভাল ছিল।

অন্যান্য খবরের জন্য পড়ুনঃ এনআরসি-র কাজে জড়ানো হয়েছে ৬২ হাজারের বেশি কর্মীকে

অধিক খবরের জন্য ভিডিও দেখুন: People thronged at various NSK seva kendras in Nagaon | The Sentinel News | Assam News

Next Story