Top
Begin typing your search above and press return to search.

চূড়ান্ত এনআরসি ৩১ আগস্ট প্ৰকাশ করার রায় দিল সুপ্ৰিম কোর্ট

চূড়ান্ত এনআরসি ৩১ আগস্ট প্ৰকাশ করার রায় দিল সুপ্ৰিম কোর্ট

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  23 July 2019 1:50 PM GMT

নয়াদিল্লিঃ সুপ্ৰিম কোর্ট মঙ্গলবার অসমে রাষ্ট্ৰীয় নাগরিক পঞ্জি(এনআরসি)প্ৰকাশের চূড়ান্ত সময় এক মাস বাড়িয়ে ৩১ আগস্ট প্ৰকাশ করার রায় দিল। কেন্দ্ৰীয় সরকার চূড়ান্ত এনআরসি প্ৰকাশের সময় সীমা বৃদ্ধি করার জন্য কোর্টের কাছে আবেদন জানিয়েছিল। কেন্দ্ৰীয় সরকার এবং এনআরসির রাজ্য সমন্বয়ক প্ৰতীক হাজেলার আর্জি নিয়ে শুনানির পর মঙ্গলবার শীর্ষ আদালত এনআরসি প্ৰকাশের চরম সময় আরও একমাস বাড়িয়ে ৩১ আগস্ট প্ৰকাশ করার রায় দিল আজ। ইতিপূর্বে আদালত আগামি ৩১ জুলাই চূড়ান্ত এনআরসি প্ৰকাশের চরম সময়সীমা বেঁধে দিয়েছিল। কিন্তু সরকারের তরফ থেকে পূর্ব নির্ধারিত ৩১ জুলাই এনআরসি নবায়নের কাজ সম্পূর্ণ করা সম্ভব নয় উল্লেখ করে এর জন্য আরও কিছুটা সময় চাওয়া হয়েছিল। প্ৰকৃত ভারতীয়দের নাম অন্তর্ভুক্তির স্বার্থেই ওই আবেদন জানিয়েছিল কেন্দ্ৰ। এনআরসির রাজ্য সমন্বয়ক প্ৰতীক হাজেলাও পুরো প্ৰক্ৰিয়া শেষ করতে বাড়তি সময় চেয়েছিলেন আদালতের কাছে। এরই পরিপ্ৰেক্ষিতে শীর্ষ আদালত সব দিক বিবেচনা করে এনআরসি প্ৰকাশের সময়সীমা এক মাস বাড়িয়ে ৩১ আগস্ট প্ৰকাশ করার রায় দেয় আজ।

সরকারের পক্ষে বক্তব্য রেখে কেন্দ্ৰীয় সরকারের দ্বিতীয় তথা সিনিয়র আইনি অফিসার তুষার মেহতা শীর্ষ আদালতকে বলেন,এনআরসি-র তালিকা থেকে অবৈধ প্ৰব্ৰজনকারীদের নাম ছাঁটতে কিছুটা সময় লাগবে। তিনি আরও বলেছেন,তালিকাটি এখনও সম্পূর্ণ করা বাকি আছে। এই তালিকা থেকে বহু অবৈধ অনুপ্ৰবেশকারীর নাম ছাঁটতে হবে এবং তালিকায় নাম বাদ পড়া বহু ভারতীয়র নাম অন্তর্ভুক্ত করার প্ৰয়োজন রয়েছে।

সুপ্ৰিমকোর্ট আগামি ৭ আগস্ট বেলা ৩টার সময় এনআরসি সম্পর্কিত সব দাবিদারদের আদালতে উপস্থিত হওয়ার জন্য এনআরসির সমন্বয়ককে একটি পাব্লিক নোটিশ ইস্যু করার নির্দেশ দিয়েছে। ওই দিন এনআরসি সম্পর্কে দাবিদারদের অভিযোগ সংক্ৰান্ত ইস্যুগুলিকে পিটিশন হিসেবে বিবেচনা করে শুনানি গ্ৰহণ করা হবে আদালতে।

চূড়ান্ত এনআরসি প্ৰকাশের সময়সীমা আরও বৃদ্ধি করার সময় কেন্দ্ৰ ও রাজ্য সরকার ২০ শতাংশ সেম্পল ভেরিফিকেশনের যে প্ৰস্তাব রেখেছিল শীর্ষ আদালত তা খারিজ করে দিয়েছে। এনআরসিতে ভুলভাবে অন্তর্ভুক্ত অথবা বাদ পড়াদের বিষয়টি খতিয়ে দেখতেই কেন্দ্ৰ ও রাজ্য সরকার ২০ শতাংশ রিভেরিফিকেশনের প্ৰস্তাব রেখেছিল।

এনআরসির রাজ্য সমন্বয়ক প্ৰতীক হাজেলা শীর্ষ আদালতকে জানিয়েছিলেন যে ৭২ লক্ষের বেশি মানুষের নাম ইতিমধ্যেই পুনঃপরীক্ষা করা হয়েছে। তাই রি-ভেরিফিকেশনের কোনও প্ৰয়োজন পড়বে না। এরই ভিত্তিতে সর্বোচ্চ আদালত রি-ভেরিফিকেশনের প্ৰস্তাবটি খারিজ করে দেয়।

অন্যান্য খবরের জন্য পড়ুনঃ চূড়ান্ত এনআরসি প্ৰকাশের সময়সীমা বাড়াতে শীর্ষ আদালতকে অনুরোধ কেন্দ্ৰের

Next Story