সংবাদ শিরোনাম

এনআরসি নিয়ে রাজ্য কংগ্ৰেসে বিভাজন

এনআরসি

 

গুয়াহাটিঃ চলতি বছরের ৩১ আগস্টে প্ৰকাশিত রাষ্ট্ৰীয় নাগরিক পঞ্জি(এনআরসি)নিয়ে রাজ্য কংগ্ৰেসের অন্দরে বিভাজনের সৃষ্টি হয়েছে। প্ৰাক্তন মুখ্যমন্ত্ৰী তরুণ গগৈ বলেছেন,এনআরসির ভুলত্ৰুটি শুধরনোর জন্য দল যদি লড়াই না করে তাহলে তিনি একাই এর জন্য লড়বেন। প্ৰাক্তন মুখ্যমন্ত্ৰী গগৈ এনআরসিকে বর্জ্য কাগজ হিসেবে অভিহিত করার পরই দলের মধ্যে বিভাজন রেখা স্পষ্ট হয়ে পড়ে বলে মনে করা হচ্ছে। অন্যদিকে দলের অন্যান্য নেতারা এনআরসিকে প্ৰত্যাখ্যান করেননি এবং তারা প্ৰকৃত ভারতীয়দের আইনি সাহা্য্যের হাত বাড়াতে রাজি হয়েছেন,যাদের নাম এনআরসিতে অন্তর্ভুক্তির অযোগ্য ঘোষিত হয়েছে।

দিন কয়েক আগে প্ৰাক্তন মুখ্যমন্ত্ৰী তরুণ গগৈ বলেছিলেন যে,এনআরসি পর্যালোচনার দাবি জানিয়ে তিনি সুপ্ৰিম কোর্টের দ্বারস্থ হবেন। গগৈ আরও বলেছিলেন,এনআরসি থেকে হিন্দু বাঙালি,গোর্খা,কোচ-রাজবংশী,স্থানীয় ভূমিপুত্ৰ,মুসলিম এবং অন্যান্যদের নাম বাদ পড়েছে। গগৈ এব্যাপারে ইতিমধ্যেই শীর্ষ আদালতকে একটি চিঠিও দিয়েছেন।

কংগ্ৰেস সংসদীয় দলের(সিএলপি)নেতা দেবব্ৰত শইকিয়া পরে সাংবাদিকদের বলেছেন,‘এনআরসি নিয়ে প্ৰাক্তন মুখ্যমন্ত্ৰী তরুণ গগৈ যে বিবৃতি দিয়েছেন সেটা তাঁর ব্যক্তিগত মতামত। সারা ভারত কংগ্ৰেস কমিটির(এআইসিসি)নির্দেশিকা অনু্যায়ী আমরা প্ৰকৃত ভারতীয়দের আইনি সাহা্য্য দিতে যাচ্ছি,যাদের নাম রাষ্ট্ৰীয় নাগরিক পঞ্জিতে(এনআরসি)অন্তর্ভুক্তির অযোগ্য ঘোষণা করা হয়েছে’।

কংগ্ৰেস সংসদীয় দলের(সিএলপি)নেতার এই বিবৃতিতে জোর প্ৰতিক্ৰিয়া প্ৰকাশ করে প্ৰাক্তন মুখ্যমন্ত্ৰী গগৈ সোমবার বলেন,‘এনআরসি নিয়ে সিএলপি নেতা যা বলেছেন সেটাও তাঁর ব্যক্তিগত বিবৃতি। রাজ্যে দলের সরকারি বিবৃতি আসা উচিত প্ৰদেশ কংগ্ৰেস সভাপতি রিপুন বরার কাছ থেকে। এনআরসি-র ভুল শুধরোনোর জন্য দল যদি লড়াই না করে তাহলে আমি একাই এব্যাপারে লড়ে যাবো’।

 

অন্যান্য খবরের জন্য পড়ুনঃ এনআরসির তথ্য সম্পর্কে অন্ধকারে দিশপুর,হাজেলাকে চিঠি সরকারের

অধিক খবরের জন্য ভিডিও দেখুন: Renovation work carried out at ancient Jame Masjid Minaret in Nagaon