ন্যাশনাল

ভারতে করোনা ভাইরাসের থাবায় তৃতীয় ব্যক্তির মৃত্যু মুম্বইয়ে

করোনা

নয়াদিল্লিঃ ভারতে করোনা ভাইরাসে আক্ৰান্ত আরও একজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। মুম্বইয়ের কস্তুরবা হাসপাতালে করোনা আক্ৰান্ত ৬৪ বছর বয়সী এই ব্যক্তিটির মৃত্যু হয়। এরআগে ভারতের কর্নাটকে প্ৰথম এবং দিল্লিতে দ্বিতীয় ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছিল এই রোগ জীবাণুর সংক্ৰমণে।

এদিকে মহারাষ্ট্ৰ সরকার আমেরিকা,দুবাই,সৌদি আরব থেকে যে সমস্ত মানুষ রাজ্যে আসছেন তাদের কোয়ারেন্টাইনে রাখা বাধ্যতামূলক করার কথা ঘোষণা করেছে সোমবার। করোনা মহামারির প্ৰতিরোধে বাড়তি সতর্কতামূলক পদক্ষেপ হিসেবেই এই ব্যবস্থা গ্ৰহণ করা হয়েছে। মহারাষ্ট্ৰের মুখ্যমন্ত্ৰী উদ্ধব ঠাকরে বলেন,কেন্দ্ৰীয় সরকার গত সপ্তাহে করোনা আক্ৰান্ত সাতটি দেশের তালিকা ঘোষণা করেছিল,মহারাষ্ট্ৰ সরকার ওই তালিকায় আরও তিনটি দেশের নাম জুড়েছে। ওই সাতটি দেশ ছাড়াও এই তিনটি দেশ থেকে রাজ্যে আসা সমস্ত লোকেদের ‘হোম কোয়ারেন্টাইন’-এ রাখার বিষয়টি রূপায়ণ বাধ্যতামূলক করছে রাজ্য সরকার।

ঠাকরে সাংবাদিকদের বলেন,রাজ্যে করোনা ভাইরাসে আক্ৰান্তদের সংখ্যা এপর্যন্ত ৩৯ জনে দাঁড়িয়েছে,যা দেশের মধ্যে সর্বাধিক। করোনা ভাইরাসে মারাত্মকভাবে আক্ৰান্ত চিন,ইরান,ইটালি,দক্ষিণ কোরিয়া,ফ্ৰান্স,স্পেন এবং জার্মানি থেকে যে সমস্ত যাত্ৰীরা রাজ্যে এসেছেন তাদের হোম কয়ারেন্টাইনের নেওয়ার বিষয়টি বাধ্যতামূলক করেছে রাজ্য সরকার।

এদিকে কর্নাটকের কালবার্গিতে যে ডাক্তার করোনায় আক্ৰান্ত ব্যক্তিটির চিকিৎসা করেছিলেন তাঁর শরীরেও এই রোগ জীবাণুর উপস্থিতি ধরা পড়েছে পরীক্ষায়। কর্নাটকের কালবার্গির ৭৬ বছর বয়সী ওই লোকটি ইতিমধ্যেই মারা গেছেন। তবে আক্ৰান্ত চিকিৎসক ও তার পরিবারকে বর্তমানে বাড়িতেই কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। আজ ওই চিকিৎসককে আইসোলেশন ওয়ার্ডে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। কালবার্গির জেলাশাসক শরৎ বি প্ৰচার মাধ্যমকে একথা জানান। এপর্যন্ত দেশে করোনা ভাইরাসে আক্ৰান্তের সংখ্যা ১২৪ জনে দাঁড়িয়েছে। ইতিমধ্যে তিনজনের জীবন কেড়ে নিয়েছে এই সংক্ৰমণ।

প্ৰধানমন্ত্ৰী নরেন্দ্ৰ মোদি কোভিড-১৯ চ্যালেঞ্জের প্ৰযুক্তিগত সমাধান উদ্ভাবনের আহ্বান জানিয়েছেন। বেশ কিছু সংখ্যক মানুষও মহামারির প্ৰযুক্তিগত সমাধানের সুপারিশ করেছেন। প্ৰধানমন্ত্ৰী মোদি রোগের মোকাবিলায় তাদের ধ্যান ধারণা সরকারের সঙ্গে শেয়ার করার আর্জি জানিয়েছেন। এধরনের প্ৰয়াস করোনার বিরুদ্ধে লড়তে অনেকাংশেই সাহায্য করতে পারে-টুইটে বলেন মোদি। রোগ সংক্ৰমণ প্ৰতিরোধে সারা দেশে যে প্ৰয়াস চলছে প্ৰধানমন্ত্ৰী তারও প্ৰশংসা করেছেন।

অন্যান্য খবরের জন্য পড়ুনঃ নেটফ্লিক্স দেখেছি,প্ৰাণায়াম করেছি,বললেন করোনা থেকে সেরে ওঠা দিল্লির প্ৰথম ব্যক্তি

অধিক খবরের জন্য ভিডিও দেখুন: State level body building and fitness competition organised at Jagiroad