Top
undefined
Begin typing your search above and press return to search.

দুই সন্তান নীতি,দিশপুরের পদক্ষেপের প্ৰতি সমর্থন আমসুর

দুই সন্তান নীতি,দিশপুরের পদক্ষেপের প্ৰতি সমর্থন আমসুর

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  30 Oct 2019 7:16 AM GMT

গুয়াহাটিঃ অসম সরকারের দুই সন্তান নীতি নিয়ে কিছু রাজনীতিক সস্তা রাজনীতি করছেন। এই অভি্যোগ করেছে সারা অসম সংখ্যালঘু ছাত্ৰ সংস্থা(আমসু)।ধর্মের নামে যারা সাধারণ মানুষকে ভুল পথে পরিচালিত করার চেষ্টা করছে আমসু তাদের সতর্ক করে দিয়েছে। মঙ্গলবার দিশপুরে সংগঠনের কার্যালয়ে আয়োজিত এক সাংবাদিক সম্মেলনে ভাষণ দিচ্ছিলেন আমসুর উপদেষ্টা আজিজুর রহমান। তিনি বলেন,অস্বাভাবিক জনসংখ্যা বৃদ্ধি এবং সম্প্ৰদায়ের মধ্যে দ্ৰুত বেড়ে চলা জন্মের হার নিয়ন্ত্ৰণে রাজ্য সরকার যে পদক্ষেপ নিয়েছে তার প্ৰতি সংস্থার পূর্ণ সমর্থন রয়েছে। তিনি বলেন,জন্ম নিয়ন্ত্ৰণের গুরুত্ব সম্পর্কে প্ৰত্যেক শুভবুদ্ধিসম্পন্ন নাগরিকেরই সচেতন থাকা উচিত।

সামাজিক ও অর্থনৈতিক অবস্থা এবং অসমের ভৌগোলিক বৈশিষ্ট্যের কথা মাথায় রেখে জনসংখ্যার বর্ধিত হার নিয়ন্ত্ৰণে গুরুত্বের সঙ্গে নজর দেওয়া এবং কার্যকরী ব্যবস্থা গ্ৰহণ অত্যন্ত প্ৰয়োজন। বিভিন্ন সম্প্ৰদায়ের বিশেষ করে সংখ্যালঘুদের আর্থিক অবস্থা যথেষ্ট ভালই বলা যায়। দুই সন্তান নীতির প্ৰতি আমাদের পূর্ণ সমর্থন রয়েছে। ‘তবে সরকারকে ওই নীতি বাস্তব সম্মত উপায়ে রূপায়ণ করতে হবে’-বলেন তিনি।

সামাজিক ক্ষেত্ৰে পিছিয়ে থাকা লোকেদের গুণগত শিক্ষাদানে উচ্চ অগ্ৰাধিকার দিতে রহমান সরকারের কাছে আর্জি জানান। শুধু সরকারি চাকরি থেকে তাদের বঞ্চিত রাখার ভয় দেখিয়ে জনসংখ্যা নিয়ন্ত্ৰণ করা যাবে না-উল্লেখ করেন আজিজুর।

ভূমিহীন লোকেদের জমি দেওয়ার যে পরিকল্পনা ও পদক্ষেপ সরকার নিচ্ছে তার প্ৰতি স্বাগত জানিয়ে রহমান বলেন,ভূমিহীন স্থানীয় ভূমিপুত্ৰদের জমি দেওয়ার যে প্ৰস্তাব সরকার রেখেছে তা নিয়ে ব্যাপক সংখ্যক মানুষের মনে বিভ্ৰান্তির সৃষ্টি হয়েছে।

স্থানীয় ‘ব্যক্তি’ সম্পর্কে সরকারিভাবে কোনও ব্যাখ্যা দেওয়া হয়নি। তাই কারা স্থানীয় লোক তা নির্ধারণ অথবা নিশ্চিত করা কঠিন। তাই সরকারের স্থানীয় শব্দটির স্পষ্ট ব্যাখ্যা দেওয়া উচিত। রাজ্যের প্ৰকৃত ভূমিহীন নাগরিকদের যাতে জমি বরাদ্দ করা হয় সরকারকে সেটা সুনিশ্চিত করা প্ৰয়োজন বলে রহমান উল্লেখ করেন।

রাজ্যের বিভিন্ন ডিটেনশন ক্যাম্পে যে সব মানুষ বন্দি রয়েছেন তাদের প্ৰতি ন্যায় বিচার করার দাবি জানিয়ে আমসু সভাপতি রিয়াজুল করিম সরকার ডিটেশন ক্যাম্পে শোচনীয় অবস্থায় যারা দিন কাটাচ্ছেন তাদের নথিপত্ৰ পুনরায় পরীক্ষা করার জন্য সরকারের কাছে দাবি জানান।

‘ডিটেনশন ক্যাম্পে যারা মারা গেছেন তাদের ক্ষেত্ৰে আইনি তদন্তের ব্যবস্থা করতেও আমরা সরকারকে অনুরোধ করছি’-বলেন সরকার।

অন্যান্য খবরের জন্য পড়ুনঃ দুই সন্তান নীতি নিয়ে আজমলের মন্তব্যের সমালোচনা শিক্ষিত মুসলিমদের

অধিক খবরের জন্য ভিডিও দেখুন: One Person Killed in a Road Accident on the NH-38 in Digboi.

Next Story