Top
undefined
Begin typing your search above and press return to search.

রাজ্য বাজেটকে স্বাগত জানাল বিভিন্ন চা সংস্থা

রাজ্য বাজেটকে স্বাগত জানাল বিভিন্ন চা সংস্থা

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  7 March 2020 1:40 PM GMT

অর্থমন্ত্ৰী হিমন্তবিশ্ব শর্মা শুক্ৰবার ২০২০-২১ অর্থ বছরের যে রাজ্য বাজেট বিধানসভায় পেশ করেছেন তার প্ৰতি স্বাগত জানিয়েছে বিভিন্ন চা সংস্থা। ১২৪৯ কোটি টাকার এই ঘাটতি বাজেটে রাজ্যের চা শিল্পকে বিশ্বের মানচিত্ৰে ঠাঁই করে দেবে বলে চা সংগঠনগুলো আশা প্ৰকাশ করেছে। বাজেটের উচ্ছ্বসিত প্ৰশংসাকারী এই চা সংস্থাগুলোর মধ্যে উত্তরপূর্ব চা সংস্থা(এনইটিএ),অসম চা চাষি সংস্থার যৌথ মঞ্চ(এটিপিএ)এবং ভারতীয় চা পরিষদও রয়েছে। সংস্থাগুলো বলেছে,উৎকৃষ্টমানের চা তথা অর্থডক্স চায়ের প্ৰতি কিলোগ্ৰামের বিপরীতে সাত টাকা করে রাজ সাহা্য্য দেওয়ার কথা বাজেটে ঘোষণা করার বিষয়টি বাস্তবিকই আদরণীয়। এটা আন্তর্জাতিক বাজারের সঙ্গে থাকা অর্থডক্স চায়ের ব্যবধান ৫০ শতাংশ দূর করবে বলে গতকাল বাজেট ভাষণে উল্লেখ করেছেন মন্ত্ৰী শর্মা।

একইসঙ্গে তিনি চা উদ্যোগকে বিভিন্ন উদ্দীপনামূলক ভাতা দেওয়ারও প্ৰস্তাব রেখেছেন। এই পদক্ষেপগুলোর মাধ্যমে রাজ্যের চা উদ্যোগকে বিশ্বের মানচিত্ৰে ঠাঁই করে দেওয়ার চেষ্টা করা হয়েছে বলে তিনি দাবি করেন। সংকটে জর্জরিত চা শিল্পের প্ৰতি প্ৰতিমন্ত্ৰীর এই ঘোষণাকে স্বাগত জানিয়েছেন উত্তর পূর্ব চা সংস্থার উপদেষ্টা বিদ্যানন্দ বরকাকতি। অবশ্য অর্থডক্স চায়ের সঙ্গে সব ধরনের চায়ের ক্ষেত্ৰে সরকারি সাহা্য্য দিতে বরকাকতি সরকারের কাছে দাবি জানিয়েছেন। তিনি বলেন,গ্ৰিন টি,হোয়াইট টি,পার্পল টি,ওলং টি ইত্যাদি রাজ সাহা্য্যের আওতায় আনার ব্যবস্থা করা উচিত। অন্যদিকে চা বাগান তথা চা শ্ৰমিক কল্যাণে বাজেটে তুলে ধরা বিভিন্ন ঘোষণার প্ৰতি স্বাগত জানিয়েছে বিভিন্ন চা সংস্থা।

উল্লেখ্য অর্থমন্ত্ৰী ২০২০-২১ বর্ষে ৭ লক্ষ ২১ হাজার ৪৮৫ চা শ্ৰমিকের অ্যাকাউন্টে তিন হাজার টাকা করে দেবে বলে ঘোষণা করেছেন। তাছাড়া বাগানগুলোর পথ নির্মাণেরও লক্ষ ধার্য করেছে সরকার। বাগানের সন্তানসম্ভবা মহিলাদের জন্য বাজেটে প্ৰকল্প ঘোষণা করা হয়েছে। এসব প্ৰকল্প রুগণ চা শিল্পকে পুনরুজ্জীবিত করবে বলে চা সংগঠনগুলো আশা প্ৰকাশ করেছে। উল্লেখ্য,কেন্দ্ৰীয় সরকার ও চা শিল্পের উন্নতিকল্পে বেশকিছু পদক্ষেপ নিয়েছে। গতমাসে কেন্দ্ৰীয় অর্থমন্ত্ৰী নির্মলা সীতারামন অসমে এসে চা শিল্পের ব্যাপারে বেশকিছু পদক্ষেপের কথা প্ৰকাশ করেছেন। একইভাবে ভারতীয় চা বোর্ডও অসমের চা শিল্পের উন্নয়নে বেশকিছু পদক্ষেপ করছে। চা বোর্ড অসমের চায়ের বিষয়ে ওড়িশায় প্ৰচার চালানোর একটি কর্মসূচি হাতে নিয়েছে।

অন্যান্য খবরের জন্য পড়ুনঃ করোনা ভাইরাসঃ মার্কিন পর্যটক থাকায় হোটেল রেডিশন ব্লুর সেকেন্ড ফ্লোর খালি করা হলো

অধিক খবরের জন্য ভিডিও দেখুন: Fully grown male elephant dies in Keroni Forest Range Office due to bad health

Next Story